গরুর পায়ের নিচেই সৌভাগ্য!

|

বিশ্বাসে অন্ধ হয়ে কত কী যে করতে পারে মানুষ আবারও তার প্রমাণ মিললো ভারতের মধ্যপ্রদেশের দিপাবলির উৎসব আচারে। এ আয়োজনে, মাটিতে উপুড় হয়ে শুয়ে থাকে মানুষ এবং তাদের মাড়িয়ে দৌড়ে যাবে শত শত গরু!

দিপাবলির পরদিন, মধ্যপ্রদেশের উজ্জয়ন জেলার একটি গ্রামে এই অনন্য ও উদ্ভট রেওয়াজ পালন করতে দেখা গেছে। যারা গবাদি পশুপালনের কাজ করেন তারা মাথা নীচু করে মাটির সাথে কষে লেগে থাকেন। তাদের ওপর দিয়ে প্রচন্ড গতিতে ছুটে যায় গরুর পাল। এতে অনেকের কাপড়ও ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে।

গ্রামবাসীদের বিশ্বাস এতে তাদের মনের ইচ্ছা পূরণ হয়। এই প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণকারীদের কেউ ব্যথা পান না বলেও দাবি গ্রামবাসীদের। আর যদি কেউ ব্যথা পানই, তাহলে তা গোমূত্র ও গোবর দিয়েই সারিয়ে তোলা সম্ভব বলে মনে করেন তারা! কারণ তাদের বিশ্বাস গোমুত্র-গোবরে নানা রকম ঔষুধি গুণাবলী রয়েছে।

গরু পায়ে পিষ্ট হওয়ার এই অনুষ্ঠানের নাম ‘গাও গাহুরি’। গরুপ্রেমি গ্রামবাসীরা নিজেরাই গরুকে শরীরের ওপর দিয়ে হাঁটানোর জন্য মাটিতে শুয়ে থাকেন। স্থানীয় চিত্রশিল্পীরা নানা রকম ছবি দিয়ে রাঙ্গিয়ে তোলেন চারপাশ। গানবাজনা-নাচও চলে সেখানে।

শুধু গ্রামেই নয়, মধ্যপ্রদেশের ঝাবুয়া জেলার গোবরধন মন্দিরেও পালিত হয় এই গাও গাহুরি। সেখানে রাখালের সাথে গরুর বন্ধন নিয়ে বিশদ ঐতিহ্যচর্চা চলে। রাখালরা সারা বছর গরুর সাথে খারাপ ব্যবহার হয়ে থাকলে তার জন্য ক্ষমাও চেয়ে নেন এখানে। মূলত আশীর্বাদ লাভই এই উৎসব পালনের কারণ বলে দাবি করেন গ্রামবাসীরা।

গায়ের ওপর গরুর দৌড়াদৌড়ি ঝুঁকিপূর্ণ হলেও গ্রামবাসীদের কথা পরিস্কার, গরু কাউকে ব্যথা দেয় না, দিতে পারে না।

যমুনা অনলাইন: আরএএম





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply