ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছে চট্টগ্রামের পরিবহন শ্রমিকরা

|

সকালে পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিয়ে বিকালে প্রত্যাহার করেছে চট্টগ্রামের পরিবহন শ্রমিকরা। চট্টগ্রাম-৪ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের চাঁদা দাবির প্রতিবাদে বৃহত্তর চট্টগ্রামে এ ধর্মঘট ডেকেছিলো সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন। দিনভর অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ এবং নানা নাটকীয়তার পর বিকালে জেলা প্রশাসকের সাথে বৈঠক শেষে ধর্মঘট প্রত্যাহার করে সংগঠনটি।

ঘটনার সুত্রপাত, গত ১০ জানুয়ারি। পরিবহন শ্রমিক নেতাদের অভিযোগ, বাসায় ডেকে নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে সীতাকুন্ড রুটে চলাচলকারী গণপরিবহনের নিয়ন্ত্রণ অথবা মাসে ২ লাখ টাকা চাঁদা চান সংসদ সদস্য দিদারুল আলম। প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মারধর করেন দুই শ্রমিক নেতাকে।

এর প্রতিবাদে রোববার সকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন ডেকে, সোমবার ভোর থেকে টানা ৪৮ ঘন্টার পরিবহন ধর্মঘটের ঘোষণা দেন পরিবহন শ্রমিক নেতারা। সংবাদ সম্মেলনে ওই বৈঠকে ঘটে যাওয়া ঘটনার বর্ণনা দেন মারধরের শিকার হওয়া শ্রমিক নেতারা।

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে, উল্টো মালিক-শ্রমিকদের বিরুদ্ধে বেপরোয়া চাঁদাবাজির অভিযোগ করেন সংসদ সদস্য দিদারুল আলম। এক পক্ষের সংবাদ সম্মেলনের ঘন্টাখানেক পর ধর্মঘট প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়ে একই জায়গায় পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করে বৃহত্তর চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন শ্রমিক ঐক্য পরিষদ নামে আরেকটি সংগঠন।

এমন পাল্টাপাল্টি অভিযোগ আর নানা নাটকীয়তার পর, বিকাল ৩টার দিকে, জেলা প্রশাসনের সাথে বৈঠক করে ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন শ্রমিক নেতারা।









Leave a reply