মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে সড়কে প্রাণ গেল বাবার

|

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনা থেকে মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ দিলেন বাবা ফয়জার রহমান। এসময় মেয়ে আরজিনা খাতুন গুরত্বর আহত হয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার রামজীবন ইউনিয়নের সুবর্ণদহ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গাইবান্ধা শহর থেকে যাত্রীবাহী ম্যাজিক (মাইক্রো) গাড়ির পিছনে বসে ফয়জার রহমান তার মেয়ে আরজিনাকে নিয়ে সুন্দরগঞ্জের পশ্চিম সোনারায় গ্রামের বাড়িতে ফিরছিলেন। এসময় গাড়িটি সুন্দরগঞ্জ-গাইবান্ধা সড়কের সুবর্ণদহ নামক স্থানে পৌঁছিলে হঠাৎ করে ঝাকুনিতে চলন্ত গাড়ি থেকে আরজিনা আকস্মিকভাবে সড়কে পড়ে যায়। আরজিনার পড়ে যাওয়া দেখে বাবা ফয়জার রহমান মেয়েকে বাঁচাতে চলন্ত গাড়ি থেকে লাফ দেন। এসময় বাবা-মেয়ে দুজনে আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় ফয়জার রহমানের।

সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুস সোবহান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। গাড়ির ঝাঁকিতে পিছন থেকে পড়ে যায় আরজিনা। এসময় বাবা ফয়জার রহমান তাকে বাঁচাতে লাফ দিয়ে আহত হয়ে মারা যান। আহত আরজিনাকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত ফয়জার রহমানের লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আহত আরজিনা খাতুন বগুড়া নার্সিং কলেজের শেষ বর্ষের ছাত্রী।









Leave a reply