ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের স্থগিত তিন কেন্দ্রে ভোট গ্রহন আগামীকাল

|

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) আসনের স্থগিত হওয়া তিনটি কেন্দ্রে আগামীকাল বুধবার ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন উপলক্ষে কেন্দ্রগুলির প্রতিটিতে ১১৩জন করে ৩৩৯জন পুুলিশ মোতায়েন থাকবে বলে জানিয়েছেন জেলা রিটার্নি কর্মকর্তা।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, আশুগঞ্জ উপজেলার বাহারদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, যাত্রাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সোহাগপুর দক্ষিণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে (৩০ ডিসেম্বর) মারামারি ও কেন্দ্র বন্ধ থাকার কারনে (১ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশন থেকে কেন্দ্র গুলিতে পুন:ভোটের জন্য (৯ জানুয়ারি) সময় বেধে দেয়া হয়। সেই অনুযায়ী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রিটার্নি অফিসারের কার্য্যালয় থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়।

কেন্দ্রগুলোতে বুধবার সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত একটানা চলবে ভোট গ্রহন। এই তিন কেন্দ্রে ২০টি বুথে ভোট গ্রহন হবে। উপজেলার বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ৩জন প্রিজাইডিং কর্মকর্তা, ২০জন সহাকারি প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও ৪০জন পোলিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করবেন। সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য সব ধরণের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা হায়াত-উদ-দৌলা-খাঁন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশের বিশেষ শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ডিআইওÑ১) মো. ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, তিনটি কেন্দ্রে ৩৩৯জন পুলিশ, ৩৬জন আনসার সদস্য মোতায়েন থাকবে। প্রতিটি কেন্দ্রে ১১৩জন পুলিশ ও ১২জন আনসার সদস্য মোতায়েন থাকবে। ৭টি স্ট্রাইকিং ফোর্স (দাঙ্গা প্রতিরোধ দল) ও ১৩টি ভ্রাম্যমান দল মোতায়েন করা হবে। এছাড়া ২১জন আনসার সদস্য প্রস্তুত থাকবে। ১৩জন আর্ম ব্যাটালিয়ান সদস্যও দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া দুই প্লাটুন বিজিবি ও ৩ গাড়ি র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‌্যাব) সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা হায়াত-উদ-দৌলা-খাঁন বলেন, ১২জন সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এবং তিনজন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকও তিন কেন্দ্রে মোতায়েন করা হবে। সুষ্ঠু নির্বাচনের সকল ধরণের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। বিকেল চারটার মধ্যেই প্রিজাডিং কর্মকর্তারা কেন্দ্রে পৌছে যাবেন।









Leave a reply