রোহিঙ্গাদের অবশ্যই ফিরিয়ে নিতে হবে: সুষমা স্বরাজ

|

রোহিঙ্গাদের অবশ্যই ফিরিয়ে নিতে হবে, এমন মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশে সফররত ভারতের পরররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। রোববার বিকেলে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তিনি রোহিঙ্গা সংকটে বাংলাদেশের প্রতি সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেন। এসময় দু’দেশের পক্ষ থেকে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি স্মারক বিনিময় করা হয়।

এর আগে, রাখাইন সংকট নিয়ে ভারতের পক্ষ থেকে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সুষমা স্বরাজ। মিয়ানমার বাংলাদেশে আসা  নাগরিকদের ফেরত না নেয়া পর্যন্ত পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে না বলে মনে করেন সফররত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। জানান, রাখাইন সংকট নিয়ে কফি আনান কমিশন রিপোর্ট বাস্তবায়নের পক্ষে নয়াদিল্লি। বাংলাদেশ-ভারত যৌথ কমিশনের সভায় তিস্তা ইস্যু উঠলেও, এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি সুষমা স্বরাজ।

 

রোববার, বিকেল সোয়া চারটায় বাংলাদেশ- ভারত যৌথ পরামর্শক কমিশনের চতুর্থ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায়, রোহিঙ্গা সংকটের কারণে বাংলাদেশ কিভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে এবং এর ভবিষ্যৎ ঝুঁকি কী তা ভারতের কাছে তুলে ধরা হয়। রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়াই যে এ সংকটের সমাধান সেই বার্তা দিল্লিকে স্পষ্টভাবেই জানিয়েছে ঢাকা। জবাবে টেকসই সমাধানের কথা বলেছে ভারতও।

বৈঠকে আবারও বহু কাঙ্ক্ষিত তিস্তা চুক্তি সইয়ের কথা তোলে বাংলাদেশ। অবশ্য গণমাধ্যমের সামনে এ নিয়ে কোনো কথা বলেননি ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী।

সুষমা স্বরাজ জানান, বাংলাদেশে বিদ্যুৎ রফতানি আরো দু-তিনগুণ বাড়াতে চায় ভারত। আসে সন্ত্রাসবাদ-জঙ্গিবাদ তথা উগ্রপন্থা দমনে ঢাকা-নয়াদিল্লি একসাথে কাজ করার প্রত্যয়।

এ সময় ভারত থেকে জ্বালানি তেল আমদানিসহ তিনটি সমঝোতা স্মারক সই করেন দু’দেশের নীতিনির্ধারকরা। এর আগে দুপুরে দু’দিনের সফরে ঢাকায় পৌছান ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী। সে সময় তাকে স্বাগত জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী। সফর শেষে সোমবার দুপুরে ঢাকা ছাড়বেন সুষমা স্বরাজ।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply