অন্য বাহিনী ব্যর্থ হলে সেনাবাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে যাবে: ইসি শাহাদাত হোসেন

|

অন্য বাহিনী ব্যর্থ হলেই কেবল সেনাবাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে যাবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নির্বাচন কমিশনে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে একথা বলেন তিনি। নির্বাচন ঘিরে উদ্বেগজনক পরিস্থিতি নেই বলেও দাবি করেন শাহাদাত হোসেন।

অন্য আরেক নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম বলেন, নির্বাচনের সময় যদি এমন কোন পরিস্থিতি তৈরি হয় তা নিয়ন্ত্রণে আনতে অন্য সব বাহিনী ব্যর্থ হচ্ছে শুধু তখনই সেনাবাহিনী এ্যাকশনে যাবে।

ইসি সূত্রে জানা যায় সেনাবাহিনীকে কোন বিচারিক ক্ষমতা দেয়া হচ্ছে না। নির্বাচনের সময় আচরণবিধি ভঙ্গ বা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর যে কোন কর্মকান্ড ঠেকানো, অপরাধের বিচার এবং শান্তি রক্ষার জন্য দেড় হাজার ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন। বিজিবি ও সেনাবাহিনীর যে কোন এ্যাকশনে তাদের সাথে ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন।

ইসি সূত্র আরো বলেছে, পরিস্থিতি মূল্যায়ন করে নির্বাচনী কাজে রিটার্নিং অফিসার প্রয়োজন মনে করলে সেনাবাহিনী ডাকতে পারবেন।

এর আগে সকালে নির্বাচনী সহিংসতাকে কেন্দ্র করে দুই জোটের প্রার্থীদের অভিযোগ নিয়ে আইন-শৃংঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবে বলে জানিয়েছেন আরেক নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম।









Leave a reply