নির্বাচনের আগে সহিংসতায় জাতিসংঘের মানবাধিকার বিশেষজ্ঞদের উদ্বেগ

|

বাংলাদেশের আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে চলমান সহিংসতায় জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষজ্ঞরা উদ্বিগ্ন বলে সংস্থাটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনারের কার্যালয় থেকে ইস্যু করা বিবৃতিতে বলা হয়, ৩০ তারিখের নির্বাচনের আগে বাংলাদেশে রাজনৈতিক সহিংসতা, মতপ্রকাশে বিধিনিষেধ আরোপ এবং ধর্মীয় মৌলবাদের উত্থানে জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

তারা বলেন, “ভোট নিকটবর্তী হওয়ার সাথে সাথে ধর্মীয় সংখ্যালঘু, বিশেষ করে হিন্দুরা, নতুন করে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হওয়ার শঙ্কায় আছেন। দুঃখজনকভাবে তাদের এই শঙ্কার যথেষ্ট ভিত্তি আছে।”

তারা আরও বলেন, বিভিন্ন রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, ২০১৮ সালের প্রথমার্ধে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অন্তত ৩৮০ জন সদস্য হামলার শিকার হয়েছেন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, নিরাপত্তা বাহিনীগুলো বিরোধী দল ও মতের ব্যক্তিদেরকে গ্রেফতার করেছে ও নিপীড়ন চালিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

বিরোধী দলগুলোর সদস্য ও সমর্থকদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে, হত্যা করা হয়েছে এবং অনেকে নিখোঁজ হয়েছেন। অনেক রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, ক্ষমতাসীন দলের সমর্থকরা এ ধরনের কিছু ঘটনায় জড়িত আছেন। “এমনকি একজন নির্বাচন কমিশনার এই মত প্রকাশ করেছেন যে, নির্বাচনে মোটেও কোনো লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড আছে বলে তিনি মনে করেন না।” বলেছেন বিশেষজ্ঞরা।

তারা বলেন, “এমন জঠিল পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং বহুল প্রয়োজনীয় জনবিতর্কের পরিবেশ তৈরি করতে বাংলাদেশি কর্তৃপক্ষের জরুরি পদক্ষেপ প্রয়োজন।”









Leave a reply