ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় ব্যারিস্টার মইনুলের ছয় মাসের জামিন

|

টেলিভিশনের লাইভ টকশোতে নারী সাংবাদিকের উদ্দেশ্যে করা আপত্তিকর মন্তব্যের জেরে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় আটক ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে ছয় মাসের জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার বিচারপতি রেজাউল হক ও বিচারপতি জাফর আহমেদের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফ। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী মাসুদ রানা। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল খুরশীদুল আলম। শুনানি শেষে মাসুদ রানা বলেন, ঢাকার গুলশান থানায় ২৬ অক্টোবর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় মইনুলকে ছয় মাসের জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এর আগে গত ১৬ অক্টোবর রাতে একাত্তরের টকশোতে এক প্রশ্নের জবাবে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে ‘চরিত্রহীন’ বলে উল্লেখ করেন। এ নিয়ে ফেসবুকে সমালোচনার ঝড় ওঠে। মাসুদা ভাট্টিসহ নারী সাংবাদিকরা মইনুল হোসেনকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান। এরপর তার বিরুদ্ধে ঢাকার আদালতে মানহানির মামলা করেন মাসুদা ভাট্টি। দেশের বিভিন্ন স্থানেও মানহানি ও ডিজিটাল আইনে মামলা হয়।

রংপুরে করা মানহানির এক মামলায় ২২ অক্টোবর রাত পৌনে ১০টার দিকে রাজধানীর উত্তরায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বাসা থেকে মইনুল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কার্যালয়ে নেওয়া হয়। পরে আদালতে তোলা হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠায়।









Leave a reply