বলি দিতে কিশোরকে তুলে নিয়ে যান তান্ত্রিক

|

পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলায় এক কিশোরকে তুলে নিয়ে গিয়ে বলির চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে এ তান্ত্রিকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত তান্ত্রিক স্বপন অধিকারী ও তার ৪ সহযোগীকে হুগলির চুঁচুড়া থেকে আটক ও ভুক্তভোগী কিশোরকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। খবর এবিপি আনন্দ’র।

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, হোমকুণ্ডের পাশে এগারো বছরের কিশোরকে তুলে এনে অমাবস্যায় বলি দেয়ার জন্য যজ্ঞ চলছিল। তবে ঠিক সময়ে উপস্থিত বুদ্ধির জোরে রক্ষা পায় কিশোরটি।

ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির চুঁচুড়ার দেবীপুরে। বছর এগারোর ওই কিশোরের দাবি, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় স্বপন অধিকারী নামে বছর পঁয়তাল্লিশের এক ব্যক্তি তাকে বলেন, তার শরীর খারাপ লাগছে।

স্বপনের অনুরোধে বাড়ি পৌঁছে দিতে তাকে নিয়ে একটা রিকশায় ওঠে কিশোরটি। কিন্তু বাড়ি ঢুকেই স্বমূর্তি ধারণ করেন তান্ত্রিক স্বপন অধিকারী। অভিযোগ, বছর এগারোর কিশোরকে ঘরে নিয়ে গিয়ে পুজা শুরু করেন স্বপন অধিকারী। বাইরে দাঁড়িয়ে পাহারা দিচ্ছিলেন তার ২ সহযোগী। বিপদ আঁচ করতে পেরে শৌচাগারে যাওয়ার নাম করে ঘর থেকে বেরিয়েই রাস্তার দিকে ছুটতে থাকে কিশোর। তাকে ধরতে ধাওয়া করেন তান্ত্রিকের সহযোগীরা। বিষয়টি জানতে পেরেই অভিযুক্ত তান্ত্রিক ও তার সহযোগীদের ধরে ফেলেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

তান্ত্রিকের বাড়ি ভাঙচুর করে উত্তেজিত জনতা। চুঁচুড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।









Leave a reply