এক দশকে ব্যাংক থেকে লুট হয়েছে সাড়ে ২২ হাজার কোটি টাকা

|

সবচেয়ে নাজুক এখন ব্যাংকিংখাত। সাত বছরে, দুর্নীতির কারণে এই খাত থেকে লুট হয়েছে সাড়ে ২২ হাজার কোটি টাকা। যা পুরো ব্যাংক ব্যবস্থার জন্য ভয়াবহ রক্তক্ষরণ। লুটপাট ঠেকানো যাচ্ছে না, নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে খোদ তদারকি সংস্থাই। আজ সকালে, ব্যাংক খাত নিয়ে এমন পর্যবেক্ষণ তুলে ধরে সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ, সিপিডি।

সিপিডি’র সম্মানীয় ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্যের সঞ্চালনায় সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুন।

মূল প্রবন্ধে বলা হয়, এক দশকে ব্যাংক থেকে সাড়ে ২২ হাজার ৫০২ কোটি টাকা লুট হয়েছে। যা পদ্মাসেতু নির্মাণ খরচের চার ভাগের তিন ভাগ। প্রবন্ধে আরো বলা হয়, ব্যাংকিং খাতের সংকট কাটছে না। তাই সমস্যা সংকুল ব্যাংকগুলোর জন্যে এখন ‘এক্সিট পলিসি’ দরকার। এক্ষেত্রে পৃথক কমিশন বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে।

প্রবন্ধে আরো বলা হয়, রাজনৈতিক বিবেচনায় ব্যাংক অনুমোদন দেওয়া এখনই বন্ধ করতে হবে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলা হয়, সংসদের কাছে গভর্নরের জবাবদিহিতার পথ তৈরি করতে হবে। যেসব ব্যাংক চরম ঝুঁকিতে রয়েছে, সেখানে প্রশাসক নিয়োগের প্রস্তাব করছে এই গবেষণা সংস্থা।

মূল প্রবন্ধে, অর্থ ঋণ আদালত সংস্কারের প্রস্তাব দেওয়া হয়। এর পাশাপাশি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের স্বক্ষমতা বাড়ানোর তাগিদ উঠে আসে। বলা হয়, নজরদারি ও তদারকি বাড়াতে এখনই উদ্যোগ গ্রহণ প্রয়োজন। চতুর্থ প্রজন্মের ব্যাংকগুলোর কর্ম দক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন আলোচকরা।









Leave a reply