সালমান এফ রহমানের নিজের বাড়ি-আসবাব নেই, নেই কোনো ঋণ

|

বেক্সিমকো গ্রুপের মালিক সালমান এফ রহমানের নিজস্ব কোনো বাড়ি বা অ্যাপার্টমেন্ট নেই, নেই কোনো আসবাবপত্র ও বৈদেশিক মুদ্রা। এমনকি তিনি ঋণ খেলাপী তো দূরের কথা ব্যাংক থেকে কোনো ঋণই গ্রহণ করেননি। নির্বাচন কমিশনে দাখিল করা হলফনামায় এসব তথ্য উল্লেখ করেন তিনি। সালমান এফ রহমান আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে ঢাকা-১ থেকে নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) অনুসারে হলফনামায় কোনো প্রার্থী তথ্য প্রদান না করলে অথবা কোনো অসত্য তথ্য প্রদান করলে বা হলফনামায় উল্লিখিত কোনো তথ্যের সমর্থনে যথাযথ সার্টিফিকেট, দলিল ইত্যাদি দাখিল না করা অপরাধ। এ ক্ষেত্রে রিটার্নিং অফিসার নিজ উদ্যোগে অথবা আদেশের ১৪ অনুচ্ছেদে উল্লিখিত কোনো ব্যক্তির আপত্তির পরিপ্রেক্ষিতে সংক্ষিপ্ত তদন্ত করে মনোনয়নপত্র বাতিল করতে পারবেন।

হলফনামায় সালমান এফ রহমান আরো বলেন, ৩৪ লাখ টাকা মূল্যের যানবাহন রয়েছে তার। তিনি ও তার স্ত্রী কোনো রকম সুদ ছাড়াই আত্মীয়-স্বজন ও বিভিন্ন কোম্পানিকে ঋণ দিয়েছেন ৩৩ কোটি ১৪ লাখ ৩৮ হাজার ১৯১ টাকা। অতীতে তার বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা হয়নি বলে উল্লেখ করেন সালমান এফ রহমান। যদিও ১৯৯৬ সালের শেয়ার কেলেঙ্কারির ঘটনায় বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস ও সালমান এফ রহমানের বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়।

হলফনামায় তিনি আরো উল্লেখ করেন, আমি একক বা যৌথভাবে আমার ওপর নির্ভরশীল কোনো সদস্য অথবা কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান, ম্যানেজিং ডিরেক্টর বা ডিরেক্টর হওয়ার সুবাদে আমি কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ গ্রহণ করি নাই। নিজ নামে স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ ২৭৮ কোটি ৬০ লাখ ৫ হাজার ৫৬৪ টাকা। তার স্ত্রীর স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ ৪২ কোটি ৩৭ লাখ ২১ হাজার ৯২৭ টাকা।

হলফনামা অনুযায়ী, সালমান এফ রহমানের বার্ষিক মোট আয় ৯ কোটি ৩৪ লাখ ৭৭ হাজার ৬২৮ টাকা। এর মধ্যে বাড়ি/অ্যাপার্টমেন্ট/দোকান বা অন্যান্য ভাড়া থেকে আয় দেখানো হয় ৩ লাখ ৯৯ হাজার টাকা। যদিও নিজ বা স্ত্রীর নামে কোনো বাড়ি/অ্যাপার্টমেন্ট নেই বলে উল্লেখ করেন তিনি।









Leave a reply