প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে অভিযোগের প্রমাণ পেলে ব্যবস্থা: আইনমন্ত্রী

|

কেউ আইনের উর্ধ্বে নয়; নৈতিক স্খলন, অর্থপাচারসহ ১১ অভিযোগ প্রমাণিত হলে, প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল না থাকলেও রাষ্ট্রপতি তার ক্ষমতাবলে ব্যবস্থা নিতে পারেন বলে জানান আইনমন্ত্রী।

আজ রবিবার সচিবালয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার বিরুদ্ধে যে ১১টি অভিযোগ উঠেছে তার বেশিরভাগই দুর্নীতি সংক্রান্ত উল্লেখ করে আনিসুল হক বলেন, অনুসন্ধান করার এখতিয়ার দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক)। দুদক এসব বিষয়ে অনুসন্ধান করবে। যদি সত্যতা পাওয়া যায় তবে মামলা হবে। মামলার পর তদন্ত হবে এবং এরপরই তার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন রাষ্ট্রপতি। সব কিছুই আইন অনুযায়ী হবে। কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়।’

প্রধান বিচারপতির ছুটি, তার বিরুদ্ধে ১১ অভিযোগ বিষয়ে সচিবালয়ে এক ব্রিফিং-এ এসব কথা বলেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতির কাছে ছুটির আবেদনে অসুস্থতার কথা নিজেই বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি। তাই বিদেশ যাওয়ার সময় সুস্থতার দাবি অনাকাঙ্ক্ষিত।

অভিযোগ ওঠার পরও এস কে সিনহাকে বিদেশ যেতে দেয়া হলো কেনো- এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, প্রধান বিচারপতি পদটি একটি প্রতিষ্ঠান। অভিযোগ উঠলেই তাড়াহুড়ো করে কোনো পদক্ষেপ তো সরকার নিতে পারে না। যথাযথ নিয়ম মেনেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্ত্রী বলেন, সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল এখনো প্রতিস্থাপন হয়নি। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার ক্ষেত্রে তাই এটি বিবেচ্য নয়। তবে রাষ্ট্রপতির ক্ষমতাবলেও ব্যবস্থা নেয়া যায় বলে মন্তব্য করেন আইনমন্ত্রী।

প্রধান বিচারপতির ছুটি নিয়ে কিছু দল রাজনীতি করছে বলেও তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন আইনমন্ত্রী।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply