ভূমিখেকো ও চাঁদাবাজদের হুমকিতে নিরাপত্তাহীন এক পরিবার

|

সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার দোলারবাজার লক্ষ্মীপাশা গ্রামে ভূমিদস্যু ও চাঁদাবাজদদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে স্থানীয় একটি পরিবার। প্রশাসনের কাছে অভিযোগ জানানোর পরও চিহ্নিত ওই সন্ত্রাসী ও ভূমিখেকো চক্রের অপতৎপরতা বন্ধ হচ্ছে না।

সম্প্রতি লক্ষ্মীপাশা গ্রামের মো. মানিক মিয়া তার মৌরশী সম্পত্তি লক্ষীপাশা মৌজার ৩১৫ নং খতিয়ানের ২০৪ নং দাগের একাংশে দেকান নির্মাণের উদ্যোগ নেন। নির্মাণ কাজ শুরুর পর সন্ত্রাসীরা বাধা দেয়। বাধাদানকারী সন্ত্রাসীরা হলো লক্ষ্মীপাশা গ্রামের মৃত ছমরু মিয়ার ছেলে মো. আবুল হোসেন (৩৫) ও আবুল হাসান (৩২), বশির মিয়ার ছেলে আব্দুল আউয়াল (৪৩), মো.গোলাম মৌলার ছেলে মো. লিয়ন মিয়া (৩৫), মৃত তাহিদ মিয়ার ছেলে মো জাহাঙ্গীর আলম (৪২), ও ইউনুস আলীর ছেলে মোঃ আবুল খায়ের (৪৫)। তাদের দাবি, ৩ লাখ টাকা চাঁদা না দিলে ঘর বানাতে দেবে না। তাদের কথা মতো কাজ না করলে প্রাণনাশেরও হুমকি দেয় সন্ত্রাসীরা।

এ ঘটনায় মানিক মিয়ার ছেলে হাবিবুল আলম বাদি হয়ে সুনামগঞ্জের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর থেকে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে সন্ত্রাসীরা। তারা মানিক মিয়ার জমি দখলের চেষ্টা ও তার সন্তানদেরকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিতে থাকে। মানিক মিয়া ও তার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছেন। ভূমিখেকো চক্রটির বিরুদ্ধে অন্যের জমি জবরদখলের আরও অভিযোগ রয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিস্টেট আদালতের ভুয়া কাগজপত্র দিয়ে ১৪৪ ধারায় মামলা করার অভিযোগও রয়েছে প্রতারকদের বিরুদ্ধে।

জমির মালিক আদালতে মামলা করার পর আইনি প্রক্রিয়ায় বিষয়টি মোকাবেলা না করে স্থানীয় দুয়েকটি সংবাদমাধ্য ও সামাজিক মাধ্যমে আক্রান্ত পরিবারের বিরুদ্ধে নানা অপপ্রচার চালাচ্ছে সন্ত্রাসীরা।

জমির মালিক ও মামলার বাদি হাবিবুল আলম বলেন, সন্ত্রাসীরা প্রতিদিন আমাদেরকে হুমকি দিচ্ছে।









Leave a reply