নেত্রকোণার পাঁচটি আসনে ৪৩ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল

|

নেত্রকোণার পাঁচটি আসনে মোট ৪৩ জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন। এর মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগের ৬ জন, বিএনপির ১৩ জন, জাতীয় পার্টির (এ) ২জন, সিপিবির ৪ জন, এলডিপির ১ জন, ইসলামী আন্দোলনর ৫জন ও অন্যান্য দলের ৭ জন। এছাড়া দুইটি আসনে আওয়ামী লীগের তিনজন নেতা বিদ্রোহী বা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন।

নেত্রকোণা জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানায়, নেত্রকোণা-১ (সদর-বারহাট্টা) আসনে ১২জন মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন। তারা হলেন: আওয়ামী লীগের মানু মজুমদার, এরশাদুর রহমান মিন্টু (মনোনয়ন পাননি), বিএনপির ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, গোলাম রব্বানী, এলডিপির এম এ করিম আব্বাসী, মুসলিম লীগের নজরুল ইসলাম, খেলাফত মজলিশের আব্দুল কাইয়ুম খান, সিপিবির আলকাছ উদ্দিন, জাকের পার্টির মোস্তফা জামান আব্বাছী, ইসলামী আন্দোলনের মামুনুর রশিদ এবং স্বতন্ত্র মোশতাক আহমেদ রুহী (আ.লীগের বিদ্রোহী) ও শাহ কুতুব উদ্দিন তালুকদার (আ.লীগের বিদ্রোহী)।

নেত্রকোণা-২ (সদর-বারহাট্টা) আসন থেকে দাখিল করেছেন ১০ জন। তারা হলেন: আওয়ামী লীগের আশরাফ আলী খান খসরু, বিএনপি আশরাফ উদ্দিন খান, এটিএম আব্দুল বারী ড্যানি, আবু হায়দার মোহাম্মদ ইউসুফ, মোহাম্মদ আনোয়ারুল হক, জাতীয় পার্টির আসমা সুলতানা, বিপ্লবী ওয়ার্কাস পার্টির রতন সরকার, সিপিবির মোশতাক আহমেদ, ইসলামী আন্দোলনের খোরশেদ আলী ও জাকের পার্টির বরকত উল্লাহ।

নেত্রকোণা-৩ (কেন্দুয়া-আটপাড়া) আসন থেকে দাখিল করেছেন ৭ জন। তারা হলেন: আওয়ামী লীগের অসীম কুমার উকিল, বিএনপির দেলোয়ার হোসেন ভূঁইয়া দুলাল, রফিকুল ইসলাম হিলালী, জাতীয় পার্টির জসিম ভূঁইয়া, ইসলামী আন্দোলনের জাকির হোসেন, সিপিবির অধ্যক্ষ আনোয়ার হাসান ও ইসলামী ঐক্যজোটের এহতেশাম সারওয়ার।

নেত্রকোণা-৪ (মদন-মোহনগঞ্জ- খালিয়াজুরি) আসন থেকে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৬ জন। তারা হলেন: আওয়ামী লীগের বর্তমান সাংসদ রেবেকা মমিন, বিএনপির তাহমিনা জামান, চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল ফারুক, সিপিবির জলি তালুকদার, ইসলামী আন্দোলনের মোফাজ্জ্বল হোসেন ও স্বতন্ত্র শফী আহমেদ (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী)।

নেত্রকোণা-৫ (পূর্বধলা) আসন থেকে দাখিল করেছেন ৮ জন। তারা হলেন: আওয়ামী লীগের বর্তমান সাংসদ ওয়ারেসাত হোসেন বেলাল বীরপ্রতীক, বিএনপির আবু তাহের তালুকদার, এএসএম শহীদুল্লাহ, রাবেয়া খাতুন, ইসলামী আন্দোলনের শামীম হোসেন, মুসলিম লীগের মো. এমআর মাসুম ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের আব্দুল ওয়াহাব হামিদী।









Leave a reply