সন্ত্রাসের জবাব দেয়া হবে উন্নয়নের মাধ্যমে: প্রধানমন্ত্রী

|

বিরোধী রাজনৈতিক জোটের প্রতি ইঙ্গিত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যারা দেশের ধ্বংস সাধন করে গেছে তাদের সাথে হাত মিলিয়ে কিভাবে উন্নয়ন হবে আমি বুঝি না। তিনি আরও বলেন, সন্ত্রাসের জবাব দেয়া হবে উন্নয়নের মাধ্যমে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নৌকার মনোনয়নবঞ্চিত আওয়ামী লীগের চার প্রভাবশালী নেতাকে গণভবনে ডেকে তাদের সাথে আলোচনা শেষে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, সন্ত্রাসীদের কাছ থেকে মনোনয়ন নিয়ে আইনের শাসন দেশে প্রতিষ্ঠিত করতে চাচ্ছেন ড.কামাল হোসেনরা।

গণভবনে ডাক পাওয়া নেতারা হলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আব্দুর রহমান এবং সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও বি এম মোহাম্মেল হক।

এর আগে বিকালে সশস্ত্র বাহিনীর দেড় শতাধিক অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গণভবনে গিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শেখ হাসিনা সরকার ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করে সাবেক সেনা কর্মকর্তারা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির সাথে থাকার অঙ্গীকার করেন। এসময় প্রধানমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান এবং তার সঙ্গে ছবি তোলেন অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

একাত্মতা ঘোষণা করা সাবেক এই সেনা কর্মকর্তাদের মধ্যে ১০৯ জন সেনাবাহিনীর, ১৮ জন বিমান বাহিনীর এবং ১৯ জন নৌবাহিনীর। তারা বলেন, আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় আসতে না পারলে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তির অস্তিত্ব হুমকির মুখে পড়বে।









Leave a reply