তারেক রহমানের স্কাইপ আলোচনা নিয়ে অপব্যাখ্যা দিচ্ছে আওয়ামী লীগ: কায়সার কামাল

|

বিএনপির আইন সম্পাদক ও খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেছেন, যারা এমপি হওয়ার জন্য ইন্টারভিউ দিতে আসছেন তাদের সাথে কথা বলছেন তারেক রহমান। এটা আমাদের দলের অভ্যন্তরীন বিষয়। এটা তো কোথাও পাবলিশ বা ব্রডকাস্ট করা হচ্ছে না। আদালত যা বলে নাই তার অপব্যাখ্যা করছে আওয়ামী লীগ।

আজ সন্ধ্যা ৬টায় যমুনা টেলিভিশনে প্রচারিত টকশো ‘রাজনীতি’তে অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন তিনি। টকশোটির সঞ্চালনা করেন রোকসানা আনজুমান নিকোল।

এসময় কায়সার কামাল আরো বলেন, ২০১৫ সালে বেগম খালেদা জিয়া যখন কার্যত গৃহবন্দি ছিলেন তখন তারেক রহমান দেশে-বিদেশে নেতাকর্মীদের সংগঠিত করার কাজ শুরু করেন। এতে নেতাকর্মীরা উজ্জিবীত হয়েছিলো। তখন আওয়ামী ঘরোনার কিছু আইনজীবী পিআইএল দায়ের করে। সেখানে পার্টিকে যুক্ত না করে শুধু তারেক রহমানকে যুক্ত করা হয়। একতরফাভাবে শুনানি করা হয়েছিলো।

এদিকে আলোচনায় অংশ নিয়ে আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, তারেক রহমান স্কাইপেতে কথা বলে শুধু নির্বাচনী আচরণ বিধি ভঙ্গ করেননি সেই সাথে তারেক রহমান ও বিএনপি প্রচলিত আইন, সংবিধান এবং যে সমস্ত বিধি-বিধান রয়েছে সেগুলোও ভঙ্গ করেছে। এটা শুধু নজিরবিহীন নয় এটি পৃথিবীর কোনো সভ্য দেশে যদি ঘটতো তাহলে রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান ও ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে সারাজীবন রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি উঠতো।

তিনি বলেন, দেশের উচ্চ আদালত ২০১৫ সালে একটি রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে বলেছে, যে ব্যক্তি দেশের প্রচলিত আইনে সাজা হয়েছে, ফৌজদারি অপরাধ সংঘটিত করেছেন তার কোনো বক্তব্য যাতে দেশের কোথাও প্রচার না করে।

উল্লেখ্য, গতকাল আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এনিয়ে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দেয়া হয়। তবে আজ ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ বলেন, তারেক রহমানের স্কাইপে আলোচনা নির্বাচনের আচরণবিধি ভঙ্গ করেনি।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply