‘ঘ’ ইউনিটে গতবার প্রথম হওয়া আকাশ এবার পরীক্ষায় অংশ নেয়নি

|

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-২০১৯ সেশনের ‘ঘ’ ইউনিটের বাতিল হওয়া ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হওয়া মো. জাহিদ হাসান আকাশ পুন:পরীক্ষায় অংশ নেননি। আজ সোমবার পুন:পরীক্ষার ফল বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়। পরে আকাশের রোল নম্বর দিয়ে এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানতে চাইলে তিনি পরীক্ষায় অংশ নেননি বলে ফিরতি এসএমএসে জানানো হয়। এছাড়া পুন:পরীক্ষায় অংশ নেয়নি গতবারের উত্তীর্ণ ২ হাজার ২৮২ জন শিক্ষার্থী। বাতিল হওয়া পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ণ হয়েছিলেন তাদের নিয়ে পুন:পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। জাহিদ হাসান আকাশ নায়িকা বুবলীর ছোট ভাই।

ঘোষিত ফলাফলে পাশের হার দেখানো হয় ৬১ দশমিক ১ শতাংশ। গত শুক্রবার অনুষ্ঠিত এই পরীক্ষায় ১৬ হাজার হাজার ১৮১ জন ভর্তিচ্ছু অংশ নেয়। এর মধ্যে পাশ করে ৯ হাজার ৮৮৬ জন। ঘ ইউনিটের অধীনে আসন রয়েছে ১ হাজার ৬১৫টি। বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে এর আগে কোনো ইউনিটেই পাশের হার এতো ছিলো না।

১২ অক্টোবর প্রথম দফায় ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে প্রথম হন জাহিদ হাসান আকাশ। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করা এই শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় নিজ ইউনিটে উত্তীর্ণ হতে পারেননি। কিন্তু ‘ঘ’ ইউনিটে তিনি বাংলায় ৩০ এর মধ্যে ৩০, ইংরেজিতে ৩০ এর মধ্যে ২৭.৩০ পেয়েছিলেন। এনিয়ে তখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠে। জানা যায়, ওই পরীক্ষা পাশ করা প্রথম ১০০ জনের মধ্যে ৭০ জন শিক্ষার্থীই তাদের নিজ অনুষদের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে ব্যর্থ হন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সব মহল থেকেই তখন পরীক্ষার ফল বাতিল করে পুনরায় পরীক্ষা নেয়ার দাবি জানানো হয়। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফল বাতিল করে ১৬ নভেম্বর পুন:পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।









Leave a reply