মনোনয়ন ম্যারাথনে ঢাবির ৬ শিক্ষক

|

প্রথম সারিতে বাম থেকে অধ্যাপক এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. মামুন আহমেদ, অধ্যাপক ড. আবু ইউসুফ মো. আবদুল্লাহ ও নিচের সারিতে বাম থেকে জোবায়ের আলম, ড. সেলিম মাহমুদ এবং অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দীন।

এমপি হওয়ার দৌঁড়ে আছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ শিক্ষক। এজন্য তারা নিজ নিজ দল থেকে মনোনয়ন ফরমও সংগ্রহ করেছেন। কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে চালাচ্ছেন জোর লবিং। পাশাপাশি নিজ নিজ এলাকায় বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানেও অংশ নিচ্ছেন তারা।

মনোনয়ন প্রত্যাশী ৬ শিক্ষক হলেন- সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দীন, সমুদ্রবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান জোবায়ের আলম, ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিউটের অধ্যাপক আবু ইউসুফ মো. আবদুল্লাহ, আইন বিভাগের ড. সেলিম মাহমুদ, পদার্থ বিজ্ঞানের অধ্যাপক এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মামুন আহমেদ। এদের মধ্যে প্রথম চারজন আওয়ামী লীগ, দুইজন বিএনপি থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। তবে এখনো কাউকে মনোনয়ন দেয়া হয়নি।

অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দীন ভোলা-৪ আসন থেকে নির্বাচন করার জন্য মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। বর্তমানে তিনি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের মুখপাত্রের দায়িত্ব পালন করছেন। এমপি হতে চাওয়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, সংসদে শিক্ষক সমাজের প্রতিনিধিত্ব করতেই এমপি হতে চান।

সমুদ্রবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান জোবায়ের আলম নীলফামারি-৩ আসন থেকে এমপি নির্বাচন করতে চান। তিনি স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য।

সাতক্ষীরা-৩ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটউটের অধ্যাপক ড. আবু ইউসুফ মো. আবদুল্লাহ।

আইন বিভাগের শিক্ষক ড. সেলিম মাহমুদ চাঁদপুর-১ আসন আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে চান। তিনি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন।

বাগেরহাট-৩ আসন থেকে পদার্থ বিজ্ঞানের অধ্যাপক এবিএম ওবায়দুল ইসলাম নির্বাচন করতে চান। তিনি বিএনপির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক। পাশাপাশি এবিএম ওবায়দুল ইসলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাদা দলের আহ্বায়কও। তিনি বলেন, সংসদে ক্লিন ইমেজের প্রার্থী পাওয়া দুষ্কর। শিক্ষা পরিবারের প্রতিনিধি হিসেবে তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে চান।

লক্ষ্মীপুর-১ আসন থেকে মনোনয়ন চান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মামুন আহমেদ। তিনি জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংসদ (জাসাস)’র সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাদেশ অনুযায়ীও শিক্ষকদের এমপি নির্বাচন করতে বাধা নেই। তবে পদত্যাগ করতে হবে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। অধ্যাদেশের ৫৬ (২) ধারায় বলা হয়েছে, যদি কোন শিক্ষক নির্বাচনে অংশ নিতে চান তাহলে নমিনেশন দাখিলের পূর্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের চাকরি থেকে পদত্যাগ করতে হবে।









Leave a reply