রাতে ঘরের বাইরে দাঁড় করিয়ে শাস্তি, অতঃপর মেয়ে নিখোঁজ


ছোট্ট শিশু শেরিন। মাত্র তিন বছর বয়স। রাতের বেলা ঘুমানোর আগে প্রতিদিন এক গ্লাস দুধ খেয়ে ঘুমায় সে। বাবার এমনই নির্দেশ। কিন্তু সেদিন ভাল লাগছিল না তার। তাই বায়না ধরে দুধ খাবে না। বাবাও নাছোড়বান্দা। খেতেই হবে। শেষমেশ মেয়ে যখন খেতে চায়-ই না, তখন কঠোর বাবা তাকে শাস্তি দিতে চাইলেন। দাঁড় করিয়ে রাখলেন ঘরের বাইরে একটি গাছের নিচে।

শেরিনকে বাইরে রেখে বাবা ঘরে ঢুকেছেন। ১৫ মিনিট পরে এসে দেখে মেয়ে তার হাওয়া! অনেকক্ষণ খোঁজাখুজির পর সন্ধান না পেয়ে জানান পুলিশকে। ঘটনা বিস্তারিত জেনে শেরিনের খোঁজে বের হয় পুলিশ। কিন্তু তার সন্ধান মিলছে না। গত সোমবারের এ ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে টেক্সাসের ডালাসে।

এদিকে শিশুকে বিপদের মুখে ঠেলে দেয়ায় বাবা ওয়েসলি ম্যাথুসকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। ওদিকে মেয়েকে এখনো খুঁজছে নিরাপত্তা কর্মীরা। কিন্তু কোনো সন্ধান মেলেনি। কিছুটা শারিরীক প্রতিবন্ধি শেরিন বাবার ওপর অভিমান করে কোথাও চলে গেছে, নাকি কেউ তাকে একা রাস্তায় পেয়ে অপহরণ করেছে কেউ বলতে পারছে না।









Leave a reply