হোয়াইট হাউসে দুই সতীনের লড়াই!

|

ট্রাম্পের যুগে এসে হোয়াইট হাউসে এমন অনেক কিছুই ঘটছে যা আগে কল্পনাও করা যায়নি। কেউ কি ভাবতে পেরেছিলেন দুই সতীনের লড়াইও দেখতে হবে হোয়াইট হাউসকে! এই দুই সতীন হলো প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বর্তমান স্ত্রী মেলানিয়া ও সাবেক (প্রথম) স্ত্রী ইভানা ট্রাম্প।

ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প ‘হিংসাত্মক প্রতিক্রিয়া’ ব্যক্ত করেছেন স্বামীর প্রথম স্ত্রী ইভানার প্রতি। সম্প্রতি একটি টেলিভিশন চ্যানেলে মজা করে ইভানা ট্রাম্প বলেন, তিনি একদা ফার্স্ট লেডি ছিলেন। আর একথাতেই কিনা তেলে বেগুনে জ্বলে উঠলেন মেলানিয়া!

মডেল ও ব্যবসায়ী ইভানা ১৯৭৭ সাল থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত ট্রাম্পের স্ত্রী ছিলেন। ট্রাম্পের উত্থান নিয়ে তার লেখা স্মৃতিচারণামূলক বই ‘রেইজিং ট্রাম্প’র প্রমোশনাল একটি টিভি অনুষ্ঠানে ইভানা বলেন, ‘আমার কাছে হোয়াইট হাউসের সরাসরি নম্বর আছে। কিন্তু আমি তাকে ফোন করতে চাই না, কারণ সেখানে মেলানিয়া আছে। আমি কোনো ধরনের প্রতিহিংসার কারণ হতে চাই না, কারণ আমি ট্রাম্পের প্রথম স্ত্রী।’

মজা করে ইভানা কথাগুলো বললেও অন্তত একজন মানুষ যে এটি সহজভাবে নিতে পারেননি তা তো বুঝাই যাচ্ছে। তিনি মেলানিয়া ট্রাম্প, ডোনাল্ড ট্রাম্পের তৃতীয় স্ত্রী, যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান ফার্স্ট লেডি। মেলানিয়ার মুখপাত্র স্টেফানি গ্রিসাম এক বিবৃতিতে জানান, তিনি ফার্স্ট লেডি হিসেবে তার ভূমিকায় গর্বিত মেলানিয়া। তিনি তার পদবী ও ভূমিকা শিশুদের সহযোগিতার কাজে ব্যয় করতে চান, বই বিক্রি করার কাজে নয়।’
ট্রাম্পের সাবেক স্ত্রীর ‘দৃষ্টি আকর্ষণের’ জন্য গোলমাল পাকাচ্ছেন বলে বিবৃতিকে উল্লেখ করা হয়।

ট্রাম্প কন্যা ইভানকার মা ইভানা প্রেসিডেন্টের ৩ সন্তানকে প্রতিপালনের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন তার বইয়ের প্রমোশনাল অনুষ্ঠানে। প্রতি ১৪ দিনে একবার তিনি সাবেক স্বামীর সাথে কথা হতো উল্লেখ করে ইভানা বলেন, মাঝে মাঝেই আমি তাকে বলতাম, অধিক কথা পরিহার করতে। তিনি ট্রাম্পের টুইটার ব্যবহার সমর্থন করেন কারণ এটির সমর্থকদের কাছে তার বক্তব্যকে সুনির্দিষ্ট ও সরাসরি করে।

উল্লেখ্য, ১৯৯২ সালে ইভানা ও ট্রাম্পের বিচ্ছেদের ঘটে। তখন ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগও  তুলেন ইভানা। মূলত, ট্রাম্পের সাথে মার্লা ম্যাপলসের (পরবর্তীতে ট্রাম্পের দ্বিতীয় স্ত্রী) সম্পর্ক ফাঁস হবার পর তাদের দাম্পত্যের অবসান ঘটে। এদিকে ২০০৫ সাল থেকে মেলানিয়ার সাথে বৈবাহিক সম্পর্কে আবদ্ধ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply