চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা, স্বামী আটক

|

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি
চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে রুনা খাতুন (২৫ ) নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালে জীবননগর উপজেলা শহরের আশঁতলাপাড়া নিজ বাড়ি থেকে ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ নিহতের স্বামী সুজনকে আটক করেছে।

নিহতের পরিবার জানায়, জীবননগর উপজেলার পাকা গ্রামের বদর উদ্দীনের মেয়ের সাথে একই উপজেলার দত্তনগর গ্রামের রেজাউল করিমের ছেলে ট্রাক চালক সুজনের সাথে বিয়ে হয় গত ২৭ মার্চ। বিয়ের পর ওই দম্পতি উপজেলা শহরের আঁশতলাপাড়ার একটি বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসাবে বসবাস শুরু করে।

স্থানীয়রা জানান, বিয়ের কিছুদিন পর থেকে মাঝে মধ্যেই সুজন-রুনা দম্পতির ঝগড়া বিবাদে জড়াতে দেখা যেতো। বৃহস্পতিবার দুপুরেও তারা নিজ ঘরে তুমুল ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়ে। এর কিছুক্ষণ পরই গৃহবধূ রুনাকে ঘরের নিজ খাটে মৃত অবস্থায় দেখতে পায় প্রতিবেশীরা। পরে জীবননগর থানা পুলিশকে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ গণি মিয়া জানান, নিহতের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। তবে ওই গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ নিহতের স্বামী সুজনকে আটক করেছে।









Leave a reply