সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী দলগুলো নিয়ে নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের দাবি

|

সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী দলগুলো নিয়ে নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের দাবি জানিয়েছেন, জাতীয় পার্টির চেয়ার‍ম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। জোটভুক্ত হয়ে তিনশো আসনে প্রার্থী দেয়ার ঘোষণাও দেন তিনি।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মিলিত জাতীয় জোটের মহাসমাবেশে একথা বলেন এরশাদ। ক্ষমতায় গেলে নির্বাচন পদ্ধতি সংস্কার, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ফিরিয়ে আনা ও সন্ত্রাস-দুর্নীতি বন্ধ করাসহ ১৮ দফা তুলে ধরেন জাপা চেয়ারম্যান।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, একটি দল সাত দফা দিয়েছে। সবকিছু মিলিয়ে আগামী দিনগুলোকে স্বচ্ছ মনে হচ্ছে না। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই, সুষ্ঠু নির্বাচনের নিশ্চয়তা চাই।

তিনি বলেন, আমরা জাতীয় পার্টি সবসময় নির্বাচন করেছি। আজও আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। তবে আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। অবাধ নির্বাচন চাই। নিশ্চয়তা চাই, আমরা যারা সংসদে আছি সবার সমন্বয়ে নির্বাচনকালীর সরকার গঠন করতে হবে।

‘শেষ কথা, নির্বাচনের জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। আমি নতুন করে ১৮ দফা কর্মসূচি গ্রহণ করেছি। আমরা নির্বাচনের পদ্ধতি পরিবর্তন করতে চাই। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা চাই। শিক্ষা পদ্ধতি সংস্কার চাই। স্বাস্থ্যসেবার সম্প্রসারণ চাই। শান্তির রাজনীতি চাই। সড়ক নিরাপত্তা চাই,’ বলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান।

এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ ও কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি প্রমুখ।

ভোর থেকেই মহাসমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেন সম্মিলিত জাতীয় জোটের নেতাকর্মীরা। লাঙ্গল প্রতীক-ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে যোগ দেন তারা।

শুধু ঢাকা নয়, দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে হাজারো নেতাকর্মী যোগ দেন এই মহাসমাবেশে। এসময় তারা জাতীয় পার্টি ও দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নামে শ্লোগান দেন।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply