‘খাশোগি হত্যায় রিয়াদ থেকে আসে ১৫ সদস্যের হিট স্কোয়াড’

|

সাংবাদিক নিখোঁজ রহস্য নিয়ে চলছে সৌদি আরব-যুক্তরাষ্ট্রের বাগযুদ্ধ। রোববার, সৌদি পার্লামেন্ট স্পিকার হুমকি দেন- দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপিত হলে; পাল্টা ও মোক্ষম জবাব পাবে বিশ্ব। মার্কিন আইনপ্রণেতাদের দাবি- জামাল খাশোগি ইস্যুতে সম্পর্ক পুর্ণমূল্যায়ন করা হোক। শিগগিরই রহস্যের ফয়সালা করতে সালমান প্রশাসনকে পূর্ণ গোয়েন্দা সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছে ব্রিটেন।

জামাল খাশোগি নিখোঁজ মামলায় তুর্কি পুলিশের তথ্য- সৌদি কনস্যুলেটেই পাশবিক নির্যাতনের পর হত্যা করা হয় সাংবাদিক’কে। যুবরাজ সালমানের নিদের্শ বাস্তবায়নে রিয়াদ থেকে এসেছিলেন ১৫ জনের একটি ‘হিট স্কোয়াড’। যাদের অত্যাচারের অডিও রেকর্ড হয় খাশোগির স্মার্টওয়াচে। যা, স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলে যায় আইফোনের আই-ক্লাউডে।

এখন পর্যন্ত অভিযোগের তীর রিয়াদের দিকে, সালমান প্রশাসনের বিরুদ্ধেই যাচ্ছে সব আলামত। একারণে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হুঁশিয়ার করেন- সংশ্লিষ্টতা প্রমাণ হলে শাস্তি পাবে সৌদি আরব। প্রত্যুত্তরে দেশটির পার্লামেন্ট স্পিকার হুমকি দেন, সাংবাদিক গুম ইস্যুতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ হলে মোক্ষম জবাব দেবে রিয়াদ।

সাংবাদিক জামাল খাশোগি নিখোঁজের ঘটনায় সৌদি আরবের ওপর কোন অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা, রাজনৈতিক চাপ বা মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। কিন্তু, এ ইস্যুতে যদি কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়, তাহলে পাল্টা জবাব দিবে সৌদি আরব। সবাই জানে, বৈশ্বিক অর্থনীতিতে কতোটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে রিয়াদের। পাশাপাশি, যারা ভূয়া খবরে বিশ্বাস করছে না, তাদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ।

অবশ্য, সালমান প্রশাসনের সাথে খাশোগি গুম ইস্যুতে সম্পর্ক পুণর্বিবেচনার দাবি তুলেছেন অনেক মার্কিন আইনপ্রণেতা।

কনস্যুলেট থেকে খাশোগির বের হওয়ার কোন ভিডিও নেই; যেটা সন্দেহের সবচেয়ে বড় কারণ। সৌদি আরব যদি সত্যিই সাংবাদিককে টুকরো-টুকরো করে ফেলে, তা অমানবিক। যুক্তরাষ্ট্র কখনোই এধরণের নৃশংসতাকে সমর্থন করে না। রিয়াদের সাথে অস্ত্র বিক্রি, মধ্যপ্রাচ্য ইস্যু বা সন্ত্রাসবাদ দমনে গভীর সম্পর্ক থাকলেও, আমার মতে- এবার সেটি বিবেচনা করা হোক।

তদন্তকাজে সৌদি আরবকে পূর্ণ সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছে, ব্রিটেনও।

সৌদি আরবের প্রতি বিশ্বাসহীনতার প্রভাব পড়েছে দেশটির পুঁজিবাজারে। সাংবাদিক জামাল খাশোগি নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে, ৯ শতাংশ পর্যন্ত ঘটেছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দরপতন। রোববারও, ৭ শতাংশ নিম্নমুখীতার মধ্যে দিয়ে শেষ হয় লেনদেন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply