চাটমোহরে রেল ষ্টেশনে অচেতন দুই ট্রেনযাত্রী উদ্ধার

|

পাবনা প্রতিনিধি
পাবনার চাটমোহর রেলওয়ে স্টেশন থেকে সোমবার ভোরে অচেতন অবস্থায় দুই ট্রেন যাত্রীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এরা হলেন, দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার বনোরা গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে সোহলে হোসেন এবং গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার কদমচর গ্রামের আবদুল মতিনের ছেলে আলামিন হোসেন। এরমধ্যে সোহেল ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকুরির ইন্টারভিউ দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন এবং আলামিন পেশায় নির্মাণ শ্রমিক।

স্থানীয়রা জানান, রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকা থেকে দিনাজপুর গামী আন্তঃনগর দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনের ছাদে চড়ে বাড়ি ফিরছিলেন সোহেল ও আলামিন। এ সময় অজ্ঞাত দুই ব্যক্তির সাথে তাদের পরিচয় হয় এবং তাদের দেয়া ঝালমুড়ি ও কোমল পানীয় খাওয়ার পর সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়ে তারা। এদিকে ট্রেনটি চাটমোহর স্টেশনে দাঁড়ানোর পর অচেতন অবস্থায় নিচে পড়ে যায় আলামিন। পরে ছাদ থেকে সোহেল নামের ওই যুবককে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। পরে দু’জনকে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর কিছুটা জ্ঞান ফিরলেও পুরোপুরি সুস্থ হননি সোহেল ও আলামিন। স্থানীয়দের ধারণা অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়েছিলেন তারা।

এ ব্যাপারে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ডা. স.ম বায়েজীদ উল ইসলাম জানান, ‘সোহেল ও আলামিন নামের ওই যুবক বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের হাসপাতালে ভর্তি রেখে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।’

সত্যতা নিশ্চিত করে চাটমোহর ষ্টেশন মাস্টার মো. মহিউল ইসলাম জানান, ‘বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে অচেতন দুই যুবককে স্থানীয়দের মাধ্যমে চাটমোহর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply