দুর্গোৎসব দেখতে বাংলাদেশে আসছেন ভারতীয়রা

|

বেনাপোল প্রতিনিধি

দুর্গোৎসব উপলক্ষে এ বছর যশোরের বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট দিয়ে বিপুল সংখ্যক ভারতীয় নাগরিক বাংলাদেশে আসছেন। তাদের মধ্যে অনেকেই মনে করেন, দুর্গোৎসব বাংলাদেশেই বেশি আড়ম্বরপূর্ণ হয় ।

ভারতের পেট্রাপোল ক্লিয়ারিং এজেন্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী বলেন, অন্য যে কোনো বছরের চেয়ে এবার অনেক বেশি সংখ্যক ভারতীয় ছুটি কাটাতে বাংলাদেশে যাচ্ছেন । ভারতে জাঁকজমকপূর্ণভাবে দীপাবলী বা কালীপূজা হলেও দুর্গোৎসব বাংলাদেশেই বেশি আড়ম্বরপূর্ণ হয় ।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের ওসি আবুল বাশার বলেন, এবার বাংলাদেশে ভ্রমণেচ্ছুকদের চাপ অন্য যেকোনো বছরের চেয়ে অনেক বেশি । দুর্গাপূজার ছুটি কাটাতে ও আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে দেখা করতে বাংলাদেশে আসছে তারা ।

কলকাতার ফ্রি স্ট্রিট রোডের সরজিত রায় (৪৬), বাগুইহাটির অমিত বসু(৫০) ও উত্তর ২৪পরগনার গোপালনগরের আকিইপুরের হিরন সরকার (৪৫) সপরিবার বাংলাদেশের হিন্দু তীর্থস্থানগুলো দেখার জন্য এসেছেন ।

সরজিৎ রায় সাথে নিয়ে এসেছেন স্ত্রী কবিতা রায় ও মেয়ে মৌমিতা রায়কে আর হিরন সরকারের সাথে আছেন স্ত্রী সুস্মিতা সরকার,ছেলে সঞ্জয় সরকার,(১৫) ও মেয়ে অর্চনা সরকার (১২)।

সরজিৎ রায় বলেন, “সরকারি চাকরি করি, তাই ঘুরে বেড়ানোর সময় পাই না । পরিবারে সময় দিতে পারি না ।
এবার পূজার লম্বা ছুটি থাকায় বাগেরহাট বেড়াতে যাচ্ছি। কিছু আত্মীয় আছেন । তাদের সঙ্গে দেখা করব । বাগেরহাটের হাকিমপুরের শিকদার বাড়িতে গড়া ৭০১টি প্রতিমা নিয়ে এশিয়ার সর্ববৃহৎ দূর্গাপূজা দেখার ইচ্ছা রয়েছে বলে তিনি জানান।

কলকাতার অমিত বসু ও সুস্মিতা বসু ঢাকার শ্যামবাজারে যাবেন আত্মীয়বাড়ি বেড়াতে ।

অমিত বসু বলেন, “শ্যামবাজারের গকুল চন্দ্র স্টেটের মন্দিরের নাম শুনেছি, দেখা হয়নি । ওখানে যাব, পুজো দেব, আত্মীয়-স্বজনের সাথে এবার পুজোটা জমিয়ে করব ।”

কলকাতার বাগুইহাটির রঞ্জন দাস বলেন, “কাজের চাপে এত দিন সময় করে উঠতে পারিনি । লম্বা ছুটি পাওয়ার সুযোগ কাজে লাগাচ্ছি।”

চব্বিশ পরগনার গোপালনগরের সুস্মিতা সরকার বলেন, “এপারে আসলাম বাংলাদেশি আত্মীয়-স্বজনদের সাথে পূজার উৎসব ভাগাভাগি করতে। একই সাথে বাংলাদেশের কয়েকটি দর্শনীয় স্থান ঘুরে দেখার ইচ্ছাও রয়েছে ।”

সুস্মিতা সরকারের মেয়ে অর্চনা সরকার বলেন,বাংলাদেশে কখনো আসিনি । এবারই প্রথম। আসতে পেরে খুব ভাল লাগছে। পূজোর কটা দিন খুব মজা করব । বাংলাদেশের হিন্দু তীর্থস্থানগুলো দেখার ইচ্ছাও রয়েছে ।

সোমবার কোলকাতা দমদমের উত্তম চৌধুরী তার স্ত্রী রিনা চৌধুরী ও একমাত্র সন্তান রাজদ্বীপ চৌধুরীকে নিয়ে বাংলাদেশে এসেছেন ।

উত্তম চৌধুরী বলেন,পূজা করতে নরসিংদী শ্বশুর বাড়ি যাচ্ছি । পূজার সময় কখনও আসতে পারেনি । মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবার সরকারি কর্মীদের টানা ১৩ দিনের ছুটি দিয়েছে। তাই শ্বশুর বাড়ির আত্নীয় স্বজনদের সাথে পূজাটা খুব ভাল কাটবে ।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply