ঠাকুরগাঁওয়ে দুর্গাপূজা মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি

|

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আউলিয়াপুর শ্রী শ্রী রশিক রায় জিউ মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। শারদীয় দুর্গাপূজায় সনাতন ধর্মালম্বীদের ও ইসকন পন্থিদের মধ্যে সংঘর্ষ এড়াতে রোববার দুপুর থেকে পরবর্তী আদেশ না দেয়া পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারির আদেশ দেন সদর উপজেলা প্রশাসন।

দীর্ঘদিন ধরে মন্দিরের জমির ভোগদখলকে কেন্দ্র করে সনাতন ও ইসকন ধর্মালম্বীদের মাঝে বিরোধ চলে আসছিল। ২০০৯ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর রশিক রায় জিউ মন্দিরে দুর্গা পূজা নিয়ে ইসকনপন্থি ও সনাতন ধর্মালম্বীদের মাঝে সংঘর্ষ হয়। এ সময় ইসকন ভক্তদের হামলায় সেবায়েত ফুলবাবু নিহত হন। এরপর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কয়েক বছর ধরে ওই মন্দিরে পূজার সময় স্থানীয় প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করে আসছে প্রশাসন।

রোববার সকালে মন্দিরে ইসকন পন্থিরা মন্দিরের মন্ডপে দূর্গা পূজার প্রস্তুতি নিতে গেলে সনাতন মতালম্বিরা তাতে বাধাঁ দেয়ার চেষ্টা করে। এতে দুপক্ষের মধ্যে মারমুখি উত্তেজনা দেখে দেয়। ফলে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে জেলা প্রশাসনের পক্ষে রোববার দুপুর (সাড়ে ১১টা) থেকে মন্দির এলাকায় ১৪৪ ধারা জারির আদেশ দেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন ।

তিনি জানান, মন্দিরের জমি নিয়ে এটি দুই গ্রুপের মাঝে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ। পূর্বেও ২০০৯ সালে পূজাকে কেন্দ্র করে এখানে হতাহতের ঘটনায় একজনের মৃত্যু হয়। এ বছরে আবারো একই ঘটনার পুণরাবৃত্তি যেন না ঘটে তাই পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত্য ১৪৪ ধারা জারির আদেশ দেওয়া হয়েছে। দূর্গা পুজা শেষ হলে ১৪৪ ধারা তুলে নেয়ার কথা রয়েছে।

জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অরুনাংশু দত্ত টিটো জানান, তিনি বিষয়টি মিটিয়ে ফেলার জন্য দুপক্ষের সাথে একাধিকবার বসার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু কোন পক্ষই বসতে আগ্রহ হয়নি। বিষয়টি নিস্পত্তির ব্যাপারে তিনি চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

পুলিশ সুপার মোহা: মনিরুজ্জামান বলেন, মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি করার পর থেকে সেখানে আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কেউ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চাইলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply