রাখাইনের সংঘাতকবলিত এলাকায় পূর্ণ প্রবেশাধিকার চায় জাতিসংঘ

|

রাখাইনের সংঘাতকবলিত এলাকায় পূর্ণ প্রবেশাধিকার চায় জাতিসংঘ। শুক্রবার জেনেভায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল মার্ক লোকক।  রোহিঙ্গাদের মানবিক বিপর্যয় এড়াতে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রায় ৪৫ কোটি ডলারের তহবিল প্রয়োজন তাও জানান।

জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল মার্ক লোকক বলেন,  “রাখাইনের প্রকৃত অবস্থা যাচাইয়ের জন্য অঞ্চলটিতে জাতিসংঘের পূর্ণ প্রবেশাধিকার প্রয়োজন। রোহিঙ্গা সংকটের উত্থান শুরু হয়েছে মিয়ানমার থেকে, তাই এর সমাধান মিয়ানমারকেই করতে হবে। তবে সবার আগে সহিংসতা বন্ধের কোনো বিকল্প নেই।”

এদিকে মিয়ানমারের রাখাইনে চলমান রোহিঙ্গা নির্যাতনের জেরে বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।
দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া বিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্যাট্রিক মারফি বলেন,  “রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রভাব কখনোই মিয়ানমারের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না। অস্থিতিশীলতা ছড়াবে পুরো অঞ্চলে। সেই সাথে রোহিঙ্গাদের ওপর এই নিপীড়ন, উস্কে দেবে সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোকে। যার ফলে উগ্রপন্হা ছড়িয়ে পড়বে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে।”

অন্যদিকে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধে আহ্ববান জানিয়েছে সৌদি বাদশাহ সালমান। রাশিয়া সফররত বাদশাহ বলেন, সংকট সমাধানে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া উচিত আন্তর্জাতিক মহলের।









Leave a reply