কানাড়ার সম্মানসূচক নাগরিকত্ব হারাচ্ছেন সু চি

|

মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চিকে দেয়া সম্মানসূচক নাগরিকত্ব প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কানাডার পার্লামেন্ট। বৃহস্পতিবার এক ভোটাভুটির পর এ বিষয়ে সর্বসম্মত হয়েছেন দেশটির আইনপ্রণেতারা।

গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় বিশেষ অবদানের জন্য ২০০৭ সালে সু চিকে সম্মানসূচক নাগরিকত্ব প্রদান করেছিল কানাডা। এ যাবৎ মাত্র ছয় জন ব্যক্তিত্বকে এ সম্মাননা দিয়েছে দেশটি। তবে রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে ব্যর্থতার দায়ে সু চির এ সম্মাননা ফিরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিলো পার্লামেন্ট।

মিয়ানমার সরকারকে গণহত্যার দায়েও অভিযুক্ত করে কানাডার আইনপ্রণেতারা। প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেন, এ সিদ্ধান্তের কারণে রোহিঙ্গাদের দুর্ভোগ হয়তো কমবে না। তবুও মানবাধিকারের প্রতি দায়বদ্ধতার কারণে এ পদক্ষেপ নিচ্ছে কানাডা। গেলো এক বছরে দমন-নিপীড়নের শিকার হয়ে দেশ ছেড়েছে প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা। তবে বরাবরই এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন মিয়ানমারের নেত্রী। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের চাপ সত্ত্বেও সংকট সমাধানে দেশটির তরফ থেকে নেই কোনো উদ্যোগ।









Leave a reply