নাটোরে ৩ দিনব্যাপী ‘চলনবিল’ আঞ্চলিক সাংস্কৃতিক উৎসবের উদ্বোধন

|

স্টাফ রিপোর্টার, নাটোর:
নাটোরে তিন দিনব্যাপী চলনবিল আঞ্চলিক সাংস্কৃতিক উৎসব শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে নাটোরের কানাইখালী স্টেডিয়ামে এ উৎসব উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি বিষয়কমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

এ সময় আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সদর আসনের সাংসদ শফিকুল ইসলাম শিমুল, বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর আসনের সাংসদ আব্দুল কুদ্দুস, জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন, পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার, নাটোর পৌর মেয়র উমা চৌধুরী জলিসহ জেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে আমরা কি অসাম্প্রদায়িক সমাজ তৈরি করব নাকি জঙ্গিবাদকে লালন করব। সাম্প্রদায়িক শক্তি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করেছে। হলিআর্টিজান ও শোলাকিয়ায় হামলা চালিয়েছে। ২১ আগস্ট বোমা হামলা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করার চেষ্টা চালিয়েছে। আমরা যদি ভুল করি তাহলে এই সমাজ আলো থেকে অন্ধকারে তলিয়ে যাবে।

নাটোর শহরের কানাইখালী মাঠে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং জাতীয় রবীন্দ্র সংগীত সম্মিলন পরিষদ নাটোর শাখার উদ্যোগে চলনবিল আঞ্চলিক সাংস্কৃতিক উৎসব কমিটি এই আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

‘সংস্কৃতির শেখর সন্ধানে-আঞ্চলিক ঐতিহ্যের মেলবন্ধনে’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে আয়োজিত তিন দিনের এই সাংস্কৃতিক উসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি, নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন, পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার, জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদের সভাপতি আমিনুল হক বাবুল সহ অন্যান্যরা।

পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করে। তিন দিনের এই সাংস্কৃতিক উৎসবে রাজশাহী বিভাগের নাটোর সহ ৮টি জেলা অংশ নিচ্ছে। এসব জেলার শিল্পী ও কলাকুশলীদের সমন্বয়ে তিন দিনের উৎসবে নাটক, সঙ্গীত, গম্ভীরা, বারসিয়া, আবৃত্তি, যাত্রা ও নৃত্য পরিবেশন এবং সংস্কৃতি বিষয়ে আলোচনা সভার আয়োজন রয়েছে।









Leave a reply