চলন্ত সিএনজিতে আছড়ে পড়লো বৈদ্যুতিক তার, প্রাণ গেল ৪ জনের

|

কুমিল্লা ব্যুরো

কুমিল্লায় চলন্ত সিএনজি চালিত অটোরিকশায় পল্লী বিদ্যুতের ১১ হাজার ভোল্টের বৈদ্যুতিক তার আছড়ে পড়ে একই পরিবারের ৩ জনসহ ৪ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার নাঙ্গলকোট- দৌলখাঁড় সড়কের বাগমারা আন্দিপুকুরপাড় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এদিকে বিষয়টি তদন্তে পল্লী বিদ্যুতের পক্ষ থেকে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নাঙ্গলকোট উপজেলার শংকরপুর গ্রামের মাওলানা আবু তাহের দুপুর ১২টার দিকে তার দুই মেয়ে, এক ছেলে ও নাতীকে নিয়ে আত্মীয়ের বাড়িতে দাওয়াতে অংশগ্রহণের জন্য বাড়ি থেকে সিএনজিতে করে রওয়ানা দেন। পথে নাঙ্গলকোট-দৌলখাড় সড়কের বাগমারা আন্দিপুকুরপাড় এলাকায় পৌঁছলে রাস্তার পাশের খুঁটি থেকে একটি বিদ্যুতের তার ওই সিএনজি অটোরিকশার উপর আছড়ে পড়ে। এতে মুহুর্তেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গাড়িটিতে আগুন ধরে যায়।

ঘটনাস্থলে ৩ যাত্রী ও সিএনজি চালকের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত হন আরও দুইজন। নিহতরা হচ্ছেন, নাঙ্গলকোট উপজেলার শংকরপুর গ্রামের মৃত হাবিবুল্লাহর ছেলে মাওলানা আবু তাহের (৬০), তার ছেলে মাওলানা বায়েজীদ (২৯), মেয়ে ফাহিমা আক্তার (১৬) এবং সিএনজি চালক একই গ্রামের মৃত আবদুর রহিমের ছেলে সারোয়ার (৩৫)।

নাঙ্গলকোট থানার এসআই মো. মিজানুর রহমান পাটোয়ারী জানান, ঘটনাস্থল থেকে নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। দুর্ঘটনার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম সহিদ উদ্দিন জানান, হঠাৎ করে ১১ হাজার ভোল্টের বিদ্যুতের তার ছিড়ে পড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি তদন্তে এজিএম মাসুদুল আলমকে আহবায়ক করে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।









Leave a reply