শৈলকুপায় ৮ মাসেও উদ্ধার হয়নি অপহৃত স্কুল ছাত্রী

|

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি
ঝিনাইদহের শৈলকুপায় দীর্ঘ ৮ মাসেও উদ্ধার হয়নি অপহৃত স্কুল ছাত্রী নিপা খাতুন (১৬)। এ ঘটনায় নিপার পিতা রামচন্দ্রপুর গ্রামের সিরাজ বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামি করে আদালতে অপহরণ মামলা দায়ের করেন।

আদালতে দায়েরকৃত মামলা সূত্রে জানা যায়, মির্জাপুর ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর কিসমত আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী নিপা ১২ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখ শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজ বাড়ি থেকে অপহৃত হয়। এ ঘটনায় নিপার পিতা পরদিন শৈলকুপা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। কিন্তু এক মাস অতিবাহিত হলেও নিপাকে খুঁজে না পাওয়ায় পরে তার পিতা বাধ্য হয়ে ঝিনাইদহের বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতে ৫ জনকে আসামিকে করে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-২৩/২০১৮, তারিখ-০৭/০২/২০১৮।

মামলার আসামিরা হলো, রামচন্দ্রপুর গ্রামের শাহিন হোসেনের ছেলে শাকিল হোসেন, মৃত মহির উদ্দীনের ছেলে শাহিন হোসেন, আনিচুর রহমানের স্ত্রী রনি খাতুন, মৃত মহির উদ্দিনের ছেলে সেলিম ও ইবি থানা এলাকার শান্তিডাঙ্গা গ্রামের দুলাল মোল্লার ছেলে ফারুক হোসেন।

নিপার পিতা কাজী সিরাজ হোসেন সাংবাদিকদের জানান, তার মেয়ে ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী। দীর্ঘদিন ধরে তার মেয়েকে স্কুলে যাতায়াতের সময় একই গ্রামের শাকিল বিভিন্ন কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। এ বিষয়ে শাকিলের পরিবারকে অবহিত করা হলেও তারা কোন কর্ণপাত করেনা। যে কারণে গ্রাম্য গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে শালিস বৈঠকও হয়। এরপরও শাকিল প্রতিনিয়তই তার নাবালিকা মেয়েকে উত্ত্যক্ত করেই আসছিলো। গত ১২ জানুয়ারি শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি বাড়িতে না থাকার সুযোগে শাকিল বাড়িতে ঢুকে তার মেয়েকে মাইক্রোবাসে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। এরপর থেকে মেয়েকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় শাকিলের পরিবারের সম্পৃক্ততা থাকায় ঐদিন রাতেই তারা স্ব-পরিবারে গা-ঢাকা দেয়। অনেক চেষ্টা করেও মেয়েকে উদ্ধারে ব্যর্থ হয়ে অবশেষে সিরাজ আদালতে যায়।

অসহায় পিতা সিরাজ হোসেন তার মেয়েকে ফিরে পেতে আদালত ও পুলিশ প্রশাসনসহ বিভিন্ন মানুষের দ্বারে দ্বারে ছুটে বেড়াচ্ছেন।









Leave a reply