শুধু খাওয়া নয়; ঘি মাখুন চুলে, ত্বকে, ঠোঁটেও

|

শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে ভারতীয় রান্নাঘরে একটি প্রধানতম খাদ্য উপাদান হল ঘি। সম্প্রতি কোর্টনি কার্দাশিয়ান এবং ইয়ামি গৌতমের মতো সেলিব্রিটিরাও ঘিয়ের উপকারিতা নিয়ে কথা বলেছেন। ঘি এমন একটি স্বাস্থ্যকর ফ্যাট যা ভিটামিন A, D, E এবং K দিয়ে ভরা। ঘি স্রেফ স্বাস্থ্যের জন্যই নয় বরং আপনার চুল এবং ত্বকের জন্যও ভাল ও উপকারী। আপনি যদি আপনার সৌন্দর্যের রুটিনে ঘি যোগ করতে চান তবে আপনার চুল, ঠোঁট এবং ত্বকের জন্য এই ৩ টি উপায়ে ঘি ব্যবহার করতে পারেন।

ঘি দিয়ে চুলের মাস্ক:

একটি বাটির মধ্যে, সম পরিমাণ নারকেল তেলের সঙ্গে ৩/৪ টেবিল চামচ ঘি মেশান। এতে যোগ করুন ১ টেবিল চামচ লেবুর রস এবং ১ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা। ভাল করে মিশিয়ে নিন। আপনার চুলের দৈর্ঘ্য বরাবর এটি প্রয়োগ করুন। কমপক্ষে ২ ঘন্টা এভাবেই রেখে দিন। এবং উষ্ণ জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আপনার চুল অনেক মসৃণ হবে এবং নরমও।

ঠোঁটে লাগান ঘি:

কম আঁচে একটি পাত্র বসিয়ে তাতে 4 টেবিল চামচ ঘি যোগ করুন। গলে গেলে ২ টেবিল চামচ নারকেল তেল এবং ১ টেবিল চামচ মধু যোগ করুন। মিশ্রণটি তরল হয়ে গেলে, একটি ছোট সমতল পাত্রে ঢেলে নিয়ে ৩/৪ ঘন্টার জন্য ফ্রিজে রেখে দিন। যখন এটি জমে শক্ত হয়ে যাবে তখন লিপবাম হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। আবার ফ্রিজেই রেখে দেবেন। ঘি আপনার ঠোঁট নরম ও কোমল করে তোলে।

বডিস্ক্রাবার ঘি

একটি বাটির মধ্যে ৪/৫ টেবিল চামচ ঘি, ৩ টেবিল চামচ বাদামি চিনি মেশান। ২ টেবিল চামচ মধু এবং অবশেষে ভ্যানিলা এসেন্স ১ চা চামচ যোগ করে দিন ওই মিশ্রণে। কাঁচের ভালো পাত্রে ফ্রিজের মধ্যে রেখে দিন। মিষ্টি সুগন্ধযুক্ত এই মিশ্রণ চামড়ার শুষ্কতা দূর করে সতেজ করে তুলবে আপনার ত্বক।









Leave a reply