সরকারি চাকরির বয়স ৩৫ করার সুপারিশ

|

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩০ এর বদলে ৩৫ বছর করার সুপারিশ করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটি। বিষয়টি এখন প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে বিবেচনাধীন। এই সিদ্ধান্তকে ইতিবাচক বলে দ্রুত বাস্তবায়ন করার দাবি জানিয়েছেন চাকরি প্রার্থীরা।

চাকরিতে প্রবেশের বর্তমান বয়সসীমা ৩০ বছর। আর অবসরের বয়স ৫৯ বছর। মানুষের গড় আয়ু বৃদ্ধি, চাকরিতে ব্যাপক প্রতিযোগিতা এমন বেশকিছু যুক্তিতে চাকরি প্রার্থীরা বয়স বাড়ানোর আন্দোলন করে আসছিলেন। সংসদ সদস্যরাও বিভিন্ন সময় এই দাবির স্বপক্ষে যুক্তি তুলে ধরে বক্তব্য দিয়েছেন।

সর্বশেষ ১০ আগস্ট জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কাছে চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩০ থেকে ৩৫ আর অবসরের বয়স ৬২ থেকে ৬৫ করার সুপারিশ করে এ সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটি।

১৯৯১ সালে চাকরিতে বয়সের সীমা ২৭ থেকে বাড়িয়ে ৩০ করা হয়। বর্তমান সরকারের আমলে আবারও দাবি উঠে বয়স বাড়ানোর। তবে তা আমলে নেয়নি সরকার। শিক্ষাবিদরা মনে করেন, দাবি মেনে নেয়া হলে চাকরিতে আবেদনকারীর সংখ্যা বাড়বে।

সরকারি চাকরিতে বয়স বাড়লে বেসরকারি চাকরির ক্ষেত্রেও তা প্রযোজ্য হতে পারে। তবে এই বয়স বাড়ানোর বিষয়টি সশস্ত্র বাহিনীর জন্য প্রযোজ্য হবে না বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

যমুনা অনলাইন:এফএম









Leave a reply