সৌদিতে ১২ ধরনের চাকরি প্রবাসীদের জন্য বন্ধ: আজ থেকে কার্যকর নতুন আইন

|

প্রবাসীদের জন্য চাকরির সুযোগ সংকুচিত করে আজ থেকে সৌদি আরবে কার্যকর হচ্ছে নতুন নীতিমালা। এর ফলে আজ থেকে ১২ ধরনের কর্মক্ষেত্রে যোগ দিতে পারবে কেবল সৌদি নাগরিকরা। বেকার সমস্যা সমাধানে আগামী কয়েক মাসে এমন আরও কিছু পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে সৌদি সরকার।

এতে চরম অনিশ্চয়তায় পড়েছে দেশটিতে বসবাসরত লাখো প্রবাসীর ভবিষ্যৎ। স্বাভাবিকভাবেই উদ্বিগ্ন প্রবাসী বাংলাদেশিরাও।

বিশ্ববাজারে তেলের দাম কমে যাওয়ায় খানিকটা সংকুচিত মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম ধনী এ দেশটির অর্থনীতি। যার ফলে কমেছে কর্মসংস্থান। গত বছর বেকারত্বের হার ছাড়িয়ে যায় ১২ শতাংশ।

পরিসংখ্যান বলছে, সৌদি আরবের পাইকারি বাজারের ৭০ শতাংশের বেশি প্রবাসী শ্রমিকদের দখলে। এ অবস্থায় চলতি বছরের শুরুতেই বেসরকারি খাতে নিজ দেশের নাগরিকদের অংশগ্রহণ বাড়াতে ১২ ধরনের কর্মক্ষেত্র শুধুমাত্র তাদের জন্য নির্ধারিত করে দেয় বাদশাহ সালমানের সরকার। আজ থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হচ্ছে মূলত খুচরা পণ্যের ব্যবসায় বিক্রয়কর্মীর পদে।

চাকুরিসহ নানা পেশায় সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদসহ বিভিন্ন শহরে বসবাসরত বাংলাদেশির সংখ্যা প্রায় ১৮ লাখ। কর্মক্ষেত্র সীমিত হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই উদ্বিগ্ন এই বিপুলসংখ্যক প্রবাসী।

অজানা শঙ্কায় দিন কাটছে সৌদি আরবে আবায়া বা বোরখার ব্যবসার সাথে জড়িত লক্ষাধিক বাংলাদেশির। জানা গেছে, এরইমধ্যে ব্যবসা বন্ধ করে অনেকেই দেশে ফিরতে শুরু করেছেন। দক্ষ ও অভিজ্ঞ এই জনশক্তিকে কোনো সুনির্দিষ্ট প্রকল্পের আওতায় চাকুরি ও ব্যবসা-বাণিজ্যে যুক্ত হওয়ার সুযোগ দিতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি অনুরোধ অনেকের।

সৌদি শ্রম ও সমাজ উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১২ ধরনের খুচরা পণ্য বিক্রয় খাতের মধ্যে চারটির জাতীয়করণের প্রক্রিয়া শুরু হবে মঙ্গলবারই। যা পুরোপুরি কার্যকর হবে আগামী ১০ নভেম্বর।

এছাড়া আগামী বছরের শুরুতেই চিকিৎসা সরঞ্জাম, নির্মাণ সামগ্রী, গাড়ির যন্ত্রাংশ, কার্পেটের ব্যবসা আর খাবারের দোকানের বিক্রয়কর্মীর পদেও শুরু হবে রাষ্ট্রীয়করণের কাজ।









Leave a reply