মার্কিনিদের বিরুদ্ধে কোনো বিচার হতে পারবে না!

|

মার্কিনীদের বিরুদ্ধে বিচারকাজ পরিচালনা করলে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত- আইসিসি’র ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে। সোমবার, দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন এই হুমকি দেন। এসময় তিনি আইসিসি’কে আখ্যা দেন অবৈধ বিচারিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে।

বোল্টন হুঁশিয়ারি দেন, মার্কিনী এবং মিত্রদের স্বার্থরক্ষায় যুক্তরাষ্ট্র সবসময় আপোষহীন। গত বছর, আইসিসি’র আইনজীবী ফাতুহ্ বেনসুদা আফগানিস্তানে দীর্ঘদিনের অভিযানে মার্কিন সেনা ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের মাধ্যমে কোনো যুদ্ধাপরাধ হয়েছে কিনা- এই মর্মে বিচার শুরুর আপিল করেন। আর, গাজা উপত্যকায় মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে সম্প্রতি ইসরায়েলকে আইসিসি’র বিচারের মুখোমুখি করার আবেদন জানায় ফিলিস্তিন। এর প্রতিক্রিয়ায়, সোমবার ওয়াশিংটনে ফিলিস্তিনের কূটনৈতিক মিশন বন্ধ করে দেয়া হয়।

বোল্টন স্পষ্ট জানান, এই দুটি মামলার কারণেই অপরাধ আদালতের ওপর নাখোশ যুক্তরাষ্ট্র।
তিনি বলেন, প্রেসিডেন্টের হয়ে স্পষ্ট বার্তা দিচ্ছি, যুক্তরাষ্ট্র বরাবরই নিজ দেশের জনগণ এবং মিত্রদের সুরক্ষার ব্যাপারে আপোষহীন। তাই, আফগানিস্তানে মার্কিন সেনাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরু করলে, আইসিসির ওপর জারি করা হবে নিষেধাজ্ঞা। আমাদের পক্ষ থেকে কোনো ধরনের সহযোগিতা বা তহবিল পাবে না অপরাধ আদালত। এরই মাঝে, মৃত প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে তারা।

বোল্টনের কথার মূল সুর মার্কিনিদের বিরুদ্ধে কোনো বিচার হতে পারবে না। তারা থাকবে ধরা ছোঁয়ার বাহিরে!

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply