নতুন আইন: কাতারে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ পাবেন প্রবাসীরা

|

উপসাগরীয় ধনী দেশগুলোতে ভিনদেশি মানুষজন লাখে লাখে কাজ করলেও তাদেরকে নাগরিকত্ব তা স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ দেয়া হয় না। তবে এই ঐতিহ্য থেকে সরে আসলো কাতার। উপসাগরীয় প্রথম দেশ হিসেবে দেশটি সেখানে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করা প্রবাসীদের স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির জারি করা নতুন আইন অনুযায়ী প্রতিবছর ১০০ জন বিদেশিকে স্থায়ী বসবাসের অনুমতি দেয়া হবে। ওই আইনে প্রবাসী শ্রমিকদের নিয়োগকর্তার অনুমতি বা এক্সিট ভিসা ছাড়াই নিজে দেশে ফেরার অনুমতি দেয়া হয়েছে।

কাতারের ‘ভিশন ২০৩০’ পরিকল্পনার অংশ হিসেবে নতুন আইন জারি হয়েছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

দোহা ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, নতুন আইনে কাতারের নাগরিক এমন মায়ের সন্তান ও ২০ বছরের বেশি সময় ধরে কাতারে বসবাস করা বিদেশিরা অগ্রাধিকার পাবে। এছাড়া মূল্যবান কর্মদক্ষতাও বিবেচনায় নেয়া হবে। ২৬ লাখ মানুষের দেশটিতে প্রায় ২২ লাখ বিদেশি বসবাস করছেন।

স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি পাওয়া বিদেশিরা দেশটির নাগরিকদের মতোই সমান সামাজিক সুরক্ষা পাবেন। এই সুবিধার মধ্যে থাকবে বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা ও সরকারি স্কুলে শিক্ষার সুযোগ। এছাড়া সরকারি চাকরিতেও অগ্রাধিকার পাবেন তারা। নতুন আইন অনুযায়ী কাতারের সশস্ত্র বাহিনীতেও কাজ করার সুযোগ পাবেন স্থায়ী বসবাসের অনুমতি পাওয়া প্রবাসীরা।









Leave a reply