সাকিবকে মিথ্যা অপবাদ, শিশিরের জবাব

|

সুপারস্টার হলে যা হয়, কিছুদিন পর পর আলোচনায় আসা, তা নিজগুণে হোক আর মানুষের অতিউৎসাহের কারণেই হোক, তাই হচ্ছে সাকিব আল হাসানের ক্ষেত্রে। বিশ্বক্রিকেটে বাংলাদেশের ঝাণ্ডা উচুঁ করে ধরা এই অলরাউন্ডারকে নিয়ে গত কিছুদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা-সমালোচনা। এবার আলোচনার কেন্দ্রে একটি পারিবারিক ছবি। যেখানে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে স্ত্রী-কন্যাসহ খেতে দেখা যাচ্ছে। এহেন ছবি নিয়েই সমালোচনার কী আছে!

উপরের প্রথম ছবিটি নিয়েই সমালোচনার সূত্রপাত

ছবিটি ভালো করে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে, সাকিব স্ত্রী-কন্যাসহ খেতে বসলেও, তাঁদের শিশু গৃহপরিচারিকা পেছনে দাঁড়িয়ে আছে। এ নিয়ে সাকিবের সমালোচনায় মুখর হন অনেকে। ‘ব্যাড বয়’ সাকিব ও তার স্ত্রী শিশিরের মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে।

কিন্তু পরের আরেকটি ছবি ছড়িয়ে পড়লে সমালোচকরা নড়েচড়ে বসেন। এটি প্রথম ছবিটির ঠিক পরের মুহূর্তে তোলা। সেখালে দেখা যাচ্ছে নাম না জানা আলোচিত এই গৃহপরিচারিকা সাকিবদের সাথে এক টেবিলেই খেতে বসেছেন । আরও নির্দিষ্ট করে বললে শিশির ঠিক পাশেই বসিয়েছেন বাড়ির পরিচারিকাকে।

স্পষ্ট ছবি শেয়ার করেছেন শিশির যেখানে গৃহপরিচারিকাকে একসাথে খেতে দেখা যাচ্ছে।

পরে নিজের ফেসবুক ওয়ালে এই নিয়ে স্ট্যাটাসও দিয়েছেন শিশির। ঐ সময়ের অনেকগুলো ছবি দিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন, ‘ভালো’ শব্দটা সাকিব আল হাসানের সঙ্গে যায় না! কেন? মিষ্টি করে কথা বলতে পারে না বলেই কি সাকিবকে খারাপ মানুষ বানিয়ে দিতে হবে?

বিষয়টাকে ‘অযৌক্তিক’ উল্লেখ করে এ ধরনের প্রচারণার ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন শিশির, ‘দেখতেই পাচ্ছেন যে প্রচারণা ছড়িয়েছে, তা ঠিক নয়, নিচের ছবিগুলোই এর প্রমাণ।’

সারা বিশ্বে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করেন যে সাকিব, তাঁর বিরুদ্ধে এমন নেতিবাচক প্রচারণা না করার অনুরোধ করে শিশির লেখেন, অন্য দেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা যখন বলে, ‌তোমার নিজের দেশের মানুষই তোমাকে প্রাপ্য সম্মানটা দেয় না, সেটা খুবই লজ্জার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়।’

সস্তা জনপ্রিয়তার আশায় অনেকে যে এধরনের পোস্ট করে সেটাও উল্লেখ করতে ভুলেননি শিশির।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply