সৎ মেয়েকে গণধর্ষণ করিয়ে নিজ হাতে হত্যা করলো মা!

|

বিভৎস! গা শিউরে উঠার মতো এক ঘটনা। নিজের ছেলেকে দিয়ে সৎ মেয়েকে জঙ্গলে তুলে নিয়ে ছেলে ও তার বন্ধুদের দিয়ে সৎ মেয়েকে গণধর্ষণ করালো এক মা! এরপর নিজেই গলা টিপে হত্যা করলো সৎ মেয়েকে। কুড়াল দিয়ে কোপালো সৎ ভাই। ছেলের বন্ধুদের একজন তুলে নিল চোখ, অন্য জন ঢেলে দিল অ্যাসিড। এমন নৃশংস ঘটনা ঘটেছে ভারতের জম্মু কাশ্মিরের বারুমুলা এলাকায়। (সূত্র: আনন্দবাজার)

গত রবিবার ঘটনাটি সামনে আসার তোলপাড় গোটা এলাকা। পুলিশের দাবি, পারিবারিক শত্রুতার জেরেই এমন নৃশংস ও ভয়াবহ কাণ্ড ঘটিয়েছেন ওই মহিলা। পাশবিকতার শিকার হয়ে মারা যাওয়া কিশোরীর (১৪) সৎ মা, সৎ ভাইসহ পাঁচ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা ঘটনার কথা স্বীকার করেছে বলে দাবি পুলিশের।

গত সপ্তাহে বারামুলার বনিয়ার এলাকার মেয়ে নিখোঁজের কথা জানিয়ে থানায় ডায়েরি করেন বাবা। রোববার ঐ ব্যক্তির বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে জঙ্গল থেকে কিশোরীর বিকৃত দেহ উদ্ধার হয়। পরনের কাপড় দেখে তাকে শনাক্ত করেন বাবা। পুলিশের তদন্তে কিশোরীর সৎ মা, সৎ ভাই এবং আরও ৩ জনের নাম উঠে আসে। পরে তাদের গ্রেফতার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তারা লোমহর্ষক এ হত্যার কথা জানায় যা শুনে গা শিউরে ওঠে খোদ পুলিশ সদস্যদের।

পুলিশ জানায়, হত্যার শিকার কিশোরীর বাবার দুই স্ত্রী। তার মাকে বিয়ের পর প্রথম স্ত্রীকে উপেক্ষা করা শুরু করে কিশোরীর বাবা। বহু বছর ধরে সেই ক্ষোভে পুষে রেখেছিলেন হত্যাকারী মা। একপর্যায়ে সুযোগ পেয়ে সৎ মেয়েকে গণধর্ষণ করিয়ে খুন করেন।

যমুনা অনলাইন: এটি









Leave a reply