ঘেরাটোপের মাঝেই কূটনীতিকদের ‘ভুতুড়ে’ রাখাইন পরিদর্শন

|

অবশেষে বিদেশি কূটনীতিক ও জাতিসংঘের প্রতিনিধিরা রাখাইন পরিস্থিতি পরিদর্শনে যেতে পারলেন। মিয়ানমার সরকারের তত্ত্বাবধানেই তারা সোমবার রাখাইন পরির্দশন করেন। এত নিয়ন্ত্রিত সফর সত্ত্বেও রাখাইনের ধ্বংসযজ্ঞ কূটনীতিকদের চোখ এড়ায়নি। রাখাইন পরিদর্শন শেষে সেখানকার পরিস্থিতিকে মানবিক বিপর্যয়ের সামিল বলছেন ওই কূটনীতিকরা।

সাইথ এশিয়া মনিটর জানাচ্ছে, এই পরিদর্শনে বিদেশি দূতাবাস, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন, জাতিসংঘ সংস্থা, মন্ত্রিসভা এবং ইরাবতীসহ বেশ কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমের ৬৬ জন সদস্য অংশ নেয়।

এর আগে, সোমবার মংডু’র জেলা প্রশাসক ইয়ে তুত প্রতিনিধিদলের পরিদর্শনের খবর গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন।

মিয়ানমার সরকারের এক বিবৃতিতে জানানো হয়, আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের ৩টি দলকে ভিন্ন ভিন্ন তিনটি এলাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। এই প্রতিনিধি দলে ছিলেন বেশ কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রদূত, UNHCR, UNODC-এর এবং বিশ্ব ব্যাংকের কর্মকর্তারা। তাদের সহিংসতার শিকার মংডুসহ রোহিঙ্গা গ্রাম আহ নোক পিয়েন ও নোরোলাহ ঘুরিয়ে দেখানো হয়।

সফর শেষে, নিজের টুইটার পেইজে সুইস রাষ্ট্রদূত পল সেগার লিখেন, ‘ভুতুড়ে এলাকায় পরিণত হয়েছে মংডু’।

জাতিসংঘের হিসাবে, ২৫ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া সেনা নিপীড়নে এখন পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছে এক হাজারের বেশি মানুষ। প্রতিবেশী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে ৫ লাখের বেশি রোহিঙ্গা।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply