শিশু কৃত্তিকা হত্যায় শান্ত’র দুই দিনের রিমান্ড

|

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার নয় মাইল এলাকায় শিশু কৃত্তিকা ত্রিপুরা হত্যা মামলার অন্যতম আসামি রবেন্দ্র ত্রিপুরা ওরফে শান্ত’র দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে খাগড়াছড়ি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মুর্শেদ আলম এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এসময় আদালতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও দীঘিনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুস সামাদ উপস্থিত ছিলেন। তারা আসামির ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

শান্ত খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলার উল্টাছড়ি ইউনিয়নের পূন্যাধন ত্রিপুরার ছেলে।

দীঘিনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, গত শনিবার দুপুরে উপজেলার লারমা স্কোয়ার থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রবেন্দ্র ত্রিপুরা ওরফে শান্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এম.এন. লারমা) সহযোগী সংগঠন যুব সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি। গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার বিষয়ে স্বীকার করে শান্ত। তার স্বীকারোক্তিতে হত্যার ঘটনায় সহযোগী আরোও তিনজনকে আটকের চেষ্টা চলছে বলেও জানায় ওসি। এছাড়া শান্ত খাগড়াছড়ি সদর থানার হত্যা মামলার পলাতক আসামি।

পুলিশ জানায়, কৃত্তিকা ত্রিপুরা হত্যার আগে নয় মাইল এলাকার মৃত নরোত্তম ত্রিপুরার ঘরে বসেই চাঁদা উত্তোলন করতো শান্ত। কৃত্তিকা ত্রিপুরার মা অনুমতি ত্রিপুরা তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার কারণেই ক্ষুদ্ধ হয়ে শিশু কৃত্তিকাকে হত্যা করে এবং এ ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি প্রদান করে। গত ২০ আগস্ট পাওয়া কৃত্তিকার ময়নাতদন্ত রিপোর্টে ধর্ষণের কোন প্রকার আলামত পাওয়া যায়নি বলেও জানায় পুলিশ।

উল্লেখ্য, গত ২৮ জুলাই খাগড়াছড়ির দীঘিনালার নয়মাইল ত্রিপুরা পল্লীতে নির্মমভাবে হত্যা করা হয় ৫ম শ্রেণির ছাত্রী কৃত্তিকা ত্রিপুরাকে। ঘটনার দিন রাতে বাড়ির পাশের জঙ্গল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে স্থানীয়রাসহ পুলিশ। এঘটনার পরের দিন কৃত্তিকার মা বাদী হয়ে কয়েকজনকে অজ্ঞাত আসামি করে দীঘিনালা থানায় মামলা দায়ের করেন।









Leave a reply