ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২৫৯, আহত ৯৬০

|

এবারের ঈদুল আজহায় ২৩৭টি সড়ক দুর্ঘটনায় ২৫৯ জন নিহত হয়েছেন। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন ৯৬০ জন। ১৬ আগস্ট থেকে ২৮ আগস্ট পর্যন্ত মোট ১৩ দিনে এই সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। এসব তথ্য উঠে এসেছে যাত্রী কল্যাণ সমিতি প্রতিবেদনে। সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলন করে এতথ্য তুলে ধরেন সংগঠনের মহাসচিব মোজাম্মেল হক।

তবে গত ঈদুল ফিতরের তুলনায় সড়ক দুর্ঘটনা ১৪ শতাংশ, প্রাণহানী ২৩.৫৯ শতাংশ ও আহত ২৪.১১ শতাংশ কমেছে বলে জানায় সংগঠনটি। আর গত ঈদুল আজহার তুলনায় দুর্ঘটনা বেড়েছে ১৩.৫০ শতাংশ ও আহত ১১.৬৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

হতাহতের মধ্যে ১২ জন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, ৪ জন চিকিৎসক, ২ জন প্রকৌশলী, ২ জন সাংবাদিক, ২ শিক্ষক, ২০ শিক্ষার্থী, ৪২ জন চালক-হেলপার, ৫৯ জন নারী, ৩৪ জন শিশু ও ০৮ জন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী রয়েছে।

সংগঠিত দুর্ঘটনার যানবাহন পরিসংখ্যানে দেখা যায় ২৯.১৮ শতাংশ বাস, ২৩.৬ শতাংশ ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান, ৬.৬ শতাংশ নছিমন-করিমন, ৫.৯ শতাংশ ব্যাটারি রিকশা ও ইজিবাইক, ১১.১৫ শতাংশ অটোরিক্সা, ৬.৯ শতাংশ কার-মাইক্রো ও ১৬.৭২ শতাংশ মোটরসাইকেল, ৯.১৬ শতাংশ অনান্য যানবাহন দুর্ঘটনায় জড়িত ছিল।

মোট সংগঠিত দুর্ঘটনার ৩১.৩৮ শতাংশ মুখোমুখি সংঘর্ষ, ৪৪.৩৫ শতাংশ পথচারীকে গাড়ী চাপা দেয়ার ঘটনা, ১৭.৫৭ শতাংশ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ার ঘটনা, ১.১০ শতাংশ চলন্ত গাড়ি থেকে পড়ে, ১.২৬ শতাংশ চাকায় উড়না পেছিয়ে ও ৫.০২ শতাংশ অনান্য অজ্ঞাত কারণে দুর্ঘটনা সংগঠিত হয়েছে।

সরকারের সব বিভাগের অব্যাহত চেষ্টার পরও সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করতে না পারার জন্য কিছু অসাধু মালিক ও শ্রমিকের বেপরোয়া আচরণকে দায়ি করা হয়েছে।









Leave a reply