বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণের দায়িত্বে শ্যাম বেনেগাল

|

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাণে পরিচালক হিসেবে ভারতীয় নির্মাতা শ্যাম বেনেগালকে চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। সোমবার দুপুরে তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন।

বঙ্গবন্ধুর জীবনী ভিত্তিক একটি চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য ভারত-বাংলাদেশ মিলে একটি জন কমিটি গঠিত হয় সেই কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক, ভারতীয় পরিচালক শ্যাম বেনেগালের নাম চূড়ান্ত করেছে সরকার।

বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ প্রযোজনায় এই চলচ্চিত্র নির্মাণের ৮০ ভাগ ব্যয় বাংলাদেশ বহন করবে। শ্যাম বেনেগালকে চলচ্চিত্র নির্মাণে সহায়তা করবেন বাংলাদেশের তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি বিশেষজ্ঞ দল।

তারানা হালিম জানিয়েছেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষের সময় ছবিটি মুক্তি দেয়ার লক্ষ্য রয়েছে। তবে নির্মাতা চাইলে আরো বেশি সময় নিতে পারবেন। একান্তই প্রয়োজন না পড়লে পরিচালকের স্বাধীনতার উপর হস্তক্ষেপ করা হবে না।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী আরও জানান, বঙ্গবন্ধুর শৈশব থেকে জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ উপমহাদেশের আন্দোলন-সংগ্রাম-ঘটনাপ্রবাহ আর বঙ্গবন্ধুর উপর তার প্রভাব; শেখ মুজিবুর রহমান কীভাবে বঙ্গবন্ধু হয়ে উঠলেন সেই বিষয়গুলোই উঠে আসবে চলচ্চিত্রটিতে। ছবির স্ক্রিপ্টসহ সমস্ত তথ্য যাচাই-বাছাই করবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেমোরিয়াল ট্রাস্ট ।

দু বছর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদীর মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারকে বঙ্গবন্ধুর ওপর যৌথভাবে চলচ্চিত্র এবং ডকুমেন্টারি তৈরির কথা ছিল। চলচ্চিত্র নির্মাণে বাংলাদেশের প্রতিনিধি দল গত জুলাই মাসে ভারত সফর করেন। ভারত থেকে ৩ জন পরিচালকের নাম প্রস্তাব করা হয়। এরা হলেন, শ্যাম বেনেগাল, গৌতম ঘোষ এবং কৌশিক গাঙ্গুলী। এদের মধ্যে থেকে শেষ পর্যন্ত শ্যাম বেনেগালকে বেছে নেয়া হলো।

চলচ্চিত্রে অসামান্য অবদানের জন্য ভারতের সরকারের তরফ থেকে পদ্ম শ্রী এবং পদ্ম ভূষণ খেতাবে ভূষিত হয়েছেন শ্যাম বেনেগাল। পেয়েছেন ভারতীয় চলচ্চিত্রের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি দাদা সাহেব ফালকে পুরস্কার। মূলত বিকল্পধারা বা প্যারালার সিনেমার জন্য বিখ্যাত হলেও বেশ কিছুদিন আগে নেতাজী সুভাষ বোসকে নিয়ে ছবি বানিয়েও সাড়া ফেলে দেন এই নির্মাতা।









Leave a reply