আরও রিপোর্ট পর্যালোচনা করে দেখবে সচিব কমিটি

|

ফাইল ছবি

সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি পর্যালোচনার জন্য গঠিত সচিব কমিটি তৃতীয় দফায় বৈঠক করেছে। রোববার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের কক্ষে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

বৈঠক শেষে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (বিধি) ও কমিটির মুখপাত্র আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিন জানান, কমিটির বৈঠকে পর্যালোচনা চলছে। এ সংক্রান্ত দেশি-বিদেশি নানা রিপোর্ট বিশ্লেষণ করে দেখা হচ্ছে। আরও অনেক রিপোর্ট পর্যালোচনা করে দেখা হবে। কোনো স্থির সিদ্ধান্তে আসা যায়নি।

এর আগে, গত ১৩ আগস্ট মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, কমিটির প্রাথমিক সুপারিশ হলো কোটা অলমোস্ট উঠিয়ে দেওয়া, মেধাকে প্রাধান্য দেওয়া। তবে সুপ্রিম কোর্টের একটি রায় আছে যে মুক্তিযোদ্ধা কোটা প্রতিপালন করতে হবে। সংরক্ষণ করতে হবে। যদি পদ খালি থাকে, তবে তা খালি রাখতে হবে।

সরকার আদালতের কাছে মতামত চাইবে উল্লেখ করে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, যদি আদালত বাতিল করে দেন, তবে কোটা থাকবে না। আর যদি আদালত বলেন, ওই অংশটুকু সংরক্ষণ করতে হবে, তবে সেটি বাদে বাকিটুকু উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। এখন আমাদের সময় এসেছে উন্মুক্ত প্রতিযোগিতায় যাওয়ার।

উল্লেখ্য, সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২ জুলাই কোটা ব্যবস্থা পর্যালোচনা জন্য সরকার মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নেতৃত্বে সাত সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে। কমিটিকে ১৫ কর্ম দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়। ৮ জুলাই প্রথম সভা করে কমিটি। পরে কমিটির মেয়াদ আরও ৯০ কার্যদিবস (৩ মাস) বাড়ানো হয়। এর আগে, সংসদে প্রধানমন্ত্রী কোটা প্রথা বাতিলের কথা বলেছিলেন।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply