গোপালগঞ্জে ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ৬০

|

স্টাফ রিপোর্টার, গোপালগঞ্জ

গোপালগঞ্জে ফুটবল খেলা ও জমিজমা বিরোধের জের ধরে আলাদা তিনটি সংঘর্ষে পুলিশ ও মহিলাসহ ৬০ জন আহত হয়েছে। এসময় কয়েকটি বাড়ী ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয়।

আজ শনিবার দুপুর ও সকালে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার নিজরা এবং কোটালীপাড়া উপজেলার বর্ষাপাড়া ও হিরন এবং কান্দি গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

গোপালগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, শুক্রবার বিকালে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার নিজড়া গ্রামের বটবাড়ী ও চৌদ্দপাড়কান্দি পাড়ার মধ্যে ফুটবল খেলা হচ্ছিল। এসময় বটবাড়ির তারা ও চৌদ্দপাড়কান্দির রাসেলের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।
এর জের ধরে আজ শনিবার দুপুরে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে উভয় পক্ষে মহিলাসহ কমপক্ষে ৩০ জন আহত হন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
এর মধ্যে মারাত্মক আহত সিরাজ খান (৩৫), পটু (২৭), সানু (৩৫), রবিউল (২৮), ফরিদা বেগম (২৮), টিটু খান (৩৫), জামাল (২৪), ইব্রাহিম (১৫), হাসান (২৬), সালমান (১৭) নাসিম শেখ (২০), লিটন উকিল (৩৪) ও বিল্লাল ফকির (২০) সহ ২০ জনকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

অপরদিকে, কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ফারুক জানান, শুক্রবার বিকালে ঈদ উপলক্ষে কোটালীপাড়া উপজেলার বর্ষাপাড়া ও হিরন গ্রামের মধ্যে ফুটবল খেলা হয। এসময় দুই গ্রামের খেলোয়াড়দের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।
এর জের ধরে আজ শনিবার সকালে উভয় গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে দুই পুলিশসহ উভয় পক্ষের কমপক্ষে ২০ জন আহত হন। এসময় উভয় পক্ষের কয়েকটি বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

মারাত্মক আহত ইউসুফ শেখ (২২), হাসান শেখ (১২), সাব্বির শেখ (১৮), সালমান শেখ (২২), লাবু শেখ (৩৫), জসিম শেখকে (২৭) গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ও ৭ জনকে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এসআই মোশাররফ হোসেন ও এসআই মোজাহিদুল ইসলামসহ বাকীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, সকালে কোটালীপাড়া উপজেলার কান্দি গ্রামে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে হাসমত ও ইস্রাফিলের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ১০ জন আহত হন। এর মধ্যে ৫ জনকে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বাকীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
ওসিরা আরো জানান, ঘটনাস্থলের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।









Leave a reply