তরুণদের চলচ্চিত্র নিয়ে আন্তর্জাতিক উৎসব সেপ্টেম্বরে

|

‘লেটস সিনেমা!’ স্লোগান নিয়ে রংপুরে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক তারুণ্যের চলচ্চিত্র উৎসব – গ্লোবাল ইয়ুথ ফিল্ম ফেস্টিভাল রংপুর’ (জিওয়াইএফএফআর)।

উৎসবে দেশ-বিদেশের অর্ধশতাধিক চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে এবং বেশিরভাগ নির্মাতাই উপস্থিত থাকবেন বলে আশা করছেন আয়োজকরা। চলচ্চিত্র সংসদ ‘সিনেমা বাংলাদেশ’র আয়োজনে ২৭-২৯ সেপ্টেম্বর বিশ্ব চলচ্চিত্রের তরুণ নির্মাতাদের এই আসর বসবে শহরের টাউন হলে।

উৎসবের আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা বিভাগে জমা পড়েছে বিশ্বের ১০১টি দেশের তরুণদের নির্মিত ১২৭০টি চলচ্চিত্র। ২৯ সেপ্টেম্বর সমাপনী দিনে বিচারকের রায়ে পুরস্কারপ্রাপ্ত সেরা পাঁচটি চলচ্চিত্রের নাম ঘোষণা করা হবে।

জিওয়াইএফএফআর এর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র বিভাগের বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন প্রখ্যাত নির্মাতা গোলাম রাব্বানী বিপ্লব, ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব ফিল্ম ক্রিটিকস এর সদস্য সাদিয়া খালিদ ও আলোচিত নির্মাতা মেহেদী হাসান।

উৎসবের প্রযোজক ও তরুণ নির্মাতা হেমন্ত সাদীক জানান, এই উৎসব থেকে বাংলা তথা ভারতীয় উপমহাদেশের চলচ্চিত্রের পথিকৃৎ হীরালাল সেনের নামে একটি পুরস্কারের প্রবর্তন করতে যাচ্ছে গ্লোবাল ইয়ুথ ফিল্ম ফেস্টিভাল বাংলাদেশ এর আয়োজক কমিটি।

এবার বাংলাদেশি তরুণদের ৮৩ টি চলচ্চিত্র জমা পড়েছে ‘হীরালাল সেন শ্রেষ্ঠ বাংলাদেশী চলচ্চিত্র’ বিভাগে। এই বিভাগের বিচারক হিসেবে আছেন ‘ভুবন মাঝি’ খ্যাত নির্মাতা ফাখরুল আরেফিন খান, নির্মাতা ও অভিনেত্রী মেহের আফরোজ শাওন ও নির্মাতা জসীম আহমেদ।

এছাড়া উৎসবের অংশ হিসেবে দেশ-বিদেশের ৫০ জন নির্মাতার অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হবে একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ কর্মশালা। যাতে প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন নির্মাতা প্রসূন রহমান, নির্মাতা ও জাতীয় পুরস্কারজয়ী চিত্রনাট্যকার অনম বিশ্বাস, প্রযোজক আরিফুর রহমান।

‘সিনেমা বাংলাদেশ’ এর সাধারণ সম্পাদক জিসান মাহাদি জানান, লক্ষ্মীপুরে সফলভাবে একটি উৎসব আয়োজনের পর এটি দ্বিতীয় আয়োজন। পর্যায়ক্রমে এটি দেশের অন্যান্য অঞ্চলেও আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে এই চলচ্চিত্র সংসদের।

প্রতিযোগিতার বাইরে এই সময়ের আলোচিত দশটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে ‘আমন্ত্রিত চলচ্চিত্র বিভাগে’।

উৎসবসূচী ও অন্যান্য তথ্যাদি পাওয়া যাবে cinemabangladesh.weebly.com এই সাইটে। কর্মশালায় অংশগ্রহণের জন্য ২৫ আগস্ট পর্যন্ত cinemabangladesh@gmail.com -এই মেইলে আবেদন করা যাবে। কর্মশালায় অংশ নিতে বা উৎসবের চলচ্চিত্র দেখতে কোন ফি দিতে হবে না বলে জানান ফেস্টিভাল প্রোগ্রামার আনন্দ কুটুম।

যমুনা টেলিভিশন এই উৎসবের মিডিয়া পার্টনার, ইয়ুথ এনগেজমেন্ট পার্টনার হিসেবে রয়েছে ডেইলি স্টার এবং রেডিও পার্টনার রেডিও স্বাধীন।









Leave a reply