নিজের কথাতেই ফেঁসে গেলেন কোহলি

|

হয়তো মজা করেই বলেছিলেন কথাটা। সেটিও যে এমন বুমেরাং হয়ে আসবে তা কী বুঝতে পেরেছিলেন ভারতের অধিনায়ক ভিরাট কোহলি। ইংল্যান্ড সফরের আগে, সাংবাদিকরা জানতে চেয়েছিলেন এই সফরে কোহলির লক্ষ্য কী? কোহলি বলেছিলেন, গত ইংল্যান্ড সফরের আগেও আমাকে এ প্রশ্ন করা হয়েছিল। বলেছিলাম, লক্ষ্য ইংল্যান্ডে গিয়ে একটু ঘুরেফিরে দেখা, আর কফি খাওয়া। আমি একটু অন্যভাবে সবকিছু দেখি। যেখানেই যাই, দেশটিকে উপভোগ করার চেষ্টা করি।

প্রথম দুই টেস্টে বাজেভাবে হারার পর এই কথাই এখন বুমেরাং হয়ে ফিরে এসেছে। সমালোচনা করেছেন সাবেক ক্রিকেটাররাও। এদেরই একজন, ভারতের সাবেক অধিনায়ক ও প্রধান নির্বাচক সন্দীপ পাতিল। বলেছেন, প্রথম দুই টেস্টে ভারতের খেলা দেখার পর মনে হচ্ছে, অধিনায়কের কথাটা ওরা বেশ সিরিয়াসলি নিয়েছিল। আক্ষরিক অর্থেই ওরা কফি উপভোগ করেছে।

তাদের সময়ে তারা যেকোনো সফরের আগে সেটি নিয়ে আলাদা করে চিন্তা করতেন, ভাবতেন এমন মন্তব্য করে পাতিল বলেন, সিনিয়র ক্রিকেটারদের অনুসরণ করতে হবে। একাধিকবার ইংল্যান্ডে সফর করেছে, সেখানে সফল হয়েছে এমন ক্রিকেটারের পরামর্শও কোহলিদের দরকার পড়েনি। ইংল্যান্ডের কফি পেয়েই ওরা খুশি।

সাবেক ক্রিকেটারদের উদাহরণ টেনে পাতিল বলেন, ইংল্যান্ড সফর করেছে এমন ভারত অধিনায়কদের যখন দেখি, অজিত ওয়াদেকার, সুনীল গাভাস্কার, আজহার, শচীন টেন্ডুলকার, সৌরভ গাঙ্গুলি। ওদের কেউ কখনো এমন গুরুত্বপূর্ণ সফরের আগে এমন দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য করেনি।

পাতিল মনে করেন কঠোর অনুশীলনের কোনো বিকল্প নেই। ফলে, দায়িত্বহীন কথা বাদ দিয়ে কোহলির দলকে মাঠের খেলায় দৃষ্টি নিবদ্ধ করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply