অস্ট্রিয়ায় নেকাব পরতে পারবেন না মুসলিম নারীরা

|

অস্ট্রিয়ায় মুসলিম নারীদের জন্য নেকাব ব্যবহার নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত কার্যকর করেছে সরকার। দেশটির পার্লামেন্টে পাস হওয়া এ বিষয়ক আইন রোববার থেকে কার্যকর হয়।

এ বিষয়ে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী মুখমণ্ডলের পুরোটাই খোলা রাখতে হবে মুসলিম নারীদের। ‘অস্ট্রিয়ার মূল্যবোধ রক্ষা’র স্বার্থেই এ নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়েছে সবাইকে।

সিদ্ধান্তটি কার্যকরে এমন সময় বেছে নিলো সরকার যখন দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আসন্ন। ধারণা করা হচ্ছে, অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে উগ্র ডানপন্থি দলগুলোর সমর্থন আদায় করতেই এমন পদক্ষেপ নিয়েছে ক্ষমতাসীন দল। তবে শুধু নেকাব নয়, মেডিকেল মাস্ক ও সং সাজতে ব্যবহৃত মুখোশ ব্যবহারেরর ওপরও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে দেশটিতে।

এদিকে সরকারের এমন সিদ্ধান্তের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন অস্ট্রিয়ায় বসবাসরত মুসলিম সমাজ ও মানবাধিকার সংস্থাগুলো। এমন নীতিকে বৈষম্যমূলক হিসেবেও অভিহিত করছেন তারা। শঙ্কার কথা জানিয়েছেন অস্ট্রিয়ার পর্যটন ব্যবসায়ীরাও। তাদের ধারণা, এমন নীতির ফলে মধ্যপ্রাচ্য এবং উপসাগরীয় দেশগুলো থেকে পর্যটকের পরিমাণ কমে যেতে পারে।

অবশ্য ইউরোপে মুসলিম সমাজের প্রতি এমন বিদ্বেষমূলক আচরণ অস্ট্রিয়াতেই প্রথম নয়। ফ্রান্স ও বেলজিয়াম ২০১১ সাল থেকেই বোরকা ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। একই রকম একটি আইন নেদারল্যান্ডসের পার্লামেন্টে পাস হওয়ার অপেক্ষায়।

এলবিএন/কিউএস









Leave a reply