কোটা তুলে দিয়ে মেধাকে প্রাধান্য দেওয়ার পক্ষে সরকারি কমিটি

|

মন্ত্রিপরিষদ সচিব। ফাইল ছবি

মুক্তিযোদ্ধা কোটা রেখে সরকারি চাকরির অন্যান্য কোটা বাদ দেয়ার পক্ষে কোটা পর্যালোচনায় গঠিত সরকারি কমিটি। এমনটা জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ শফিউল আলম। বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কোটার বিষয়ে আদালতের নির্দেশনা চাওয়া হবে।

সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানাতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

তিনি বলেন, কমিটির প্রাথমিক সুপারিশ হলো কোটা অলমোস্ট উঠিয়ে দেওয়া, মেধাকে প্রাধান্য দেওয়া। তবে সুপ্রিম কোর্টের একটি রায় আছে যে মুক্তিযোদ্ধা কোটা প্রতিপালন করতে হবে। সংরক্ষণ করতে হবে। যদি পদ খালি থাকে, তবে তা খালি রাখতে হবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও বলেন, সরকার আদালতের কাছে মতামত চাইবে। যদি আদালত বাতিল করে দেন, তবে কোটা থাকবে না। আর যদি আদালত বলেন, ওই অংশটুকু সংরক্ষণ করতে হবে, তবে সেটি বাদে বাকিটুকু উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। এখন আমাদের সময় এসেছে উন্মুক্ত প্রতিযোগিতায় যাওয়ার।

উল্লেখ্য, সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি পর্যালোচনার জন্য সরকার মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নেতৃত্বে সাত সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে। এর আগে, সংসদে প্রধানমন্ত্রী কোটা প্রথা বাতিলের কথা বলেছিলেন।

যমুনা অনলাইন: টিএফ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply