সালিশে প্রবাসীর স্ত্রীকে মধ্যযুগীয় নির্যাতন, আটক ২

|

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে পরকীয়ার অভিযোগে আসমা আক্তার নামে এক গৃহবধূকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করা হয়েছে। পরে মারধরের সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। উপজেলার বেকিসাতপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

মারধরের শিকার আসমা আক্তার ওই গ্রামের সামছু ব্যাপারীর পুত্র প্রবাসী কবির হোসেনের স্ত্রী। এ ঘটনায় আসমার বোন নারগিস আক্তার বাদি হয়ে ৫ জনকে আসামি করে দাউদকান্দি মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দু’জনকে আটক করেছে। অভিযুক্ত বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মামলায় জানা যায়, সম্প্রতি চার সন্তানের ওই জননীর বিরুদ্ধে পরকীয়ার অভিযোগে সালিশি বৈঠক বসে। সেখানে মিন্টু মাতব্বরের নির্দেশে ওই গৃহবধূকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন চালানো হয়। পেটানো হয় কথিত প্রেমিককেও।

জানা যায়, প্রবাসী কবির হোসেনের স্ত্রী আসমা আক্তারের এক পুত্র হাফেজ। আরেকজন মাদ্রাসায় পড়ে। বাকি দুজনের একজন কেজিতে পড়ে। আরেকজনের বয়স চার বছর।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি মো. আলমগীর হোসেন বলেন, এ ঘটনার প্রধান আসামি সাইফুল অপর আসামি বাবুলকে আটক করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

যমুনা অনলাইন: কেআর









Leave a reply