নাটোরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

|

স্টাফ রিপোর্টার, নাটোর
নাটোরে স্ত্রী হত্যার দায়ে মিনারুল সরকার (২৫) নামে এক যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার বিকেলে নাটোরের জেলা ও দায়রা জজ মোঃ রেজাউল করিম এই দন্ডাদেশ দেন। মিনারুল সরকার রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বামনডাঙ্গা সরেরহাট গ্রামের আরজেদ সরকারের ছেলে।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৭ সালের ২৪ জানুয়ারি বিকেলে নাটোরের দক্ষিণ লালপুরে বাবার বাড়িতে সুমি আক্তারকে তাঁর স্বামী মিনারুল সরকার গলাটিপে হত্যা করে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় নিহত সুমির ভাই সুমন আলী বাদী হয়ে লালপুর থানায় তাঁর ভগ্নিপতি মিনারুল সরকারকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

মামলায় তিনি অভিযোগ করেন, বিয়ের একবছরের মধ্যে তাঁর বোন গর্ভবতী হন। গর্ভে মেয়ে শিশু থাকায় তার বোনকে বাচ্চা নষ্ট করার জন্য চাপ দিতে শুরু করে। ঘটনার দিন তাঁর বোন আট মাসের গর্ভবতী ছিল। এ অবস্থায় তাঁকে গলাটিপে হত্যা করা হয়। পরে পুলিশ আনারুলকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠায়।

লালপুর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) আনোয়ারুল ইসলাম তদন্ত করে একমাত্র আসামির বিরুদ্ধে ২০১৭ সালের ৭ এপ্রিল আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলাটি জেলার জ্যেষ্ঠ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিচারের জন্য এলে আটজন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।

অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আসামি মিনারুল সরকারের বিরুদ্ধে এই দন্ডাদেশ দেয়া হয়। এ সময় মামলার একমাত্র আসামি নিহত সুমির স্বামী মিনারুল সরকার (২৭) কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।









Leave a reply